আগামী নির্বাচনেও আ.লীগকে জয়ী করার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

প্রকাশিত: ২৪-১১-২০২২ ০৯:২৯

আপডেট: ২৫-১১-২০২২ ১৫:০১

নিজস্ব প্রতিবেদক: আগামী জাতীয় নির্বাচনে নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে আওয়ামী লীগ প্রার্থীদের জয়ী করার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ বৃহস্পতিবার (২৪শে নভেম্বর) দুপুরে যশোরের শামস-উল হুদা স্টেডিয়ামে আয়োজিত জনসভায় তিনি এ আহ্বান জানান। এসময় তিনি  বলেন, ভোটের লড়াইয়ে তার প্রতি আস্থা রাখলে দেশ এগিয়ে যাবে। আগামী নির্বাচনে বিজয়ী হলে দেশকে সমৃদ্ধির শিখরে নিয়ে যাবেন বলেও আশ্বাস দেন প্রধানমন্ত্রী।

বিএনপি-জামায়াত কী দিয়েছে প্রশ্ন রেখে প্রধানমন্ত্রী বলেন, দিয়েছে অস্ত্র, দিয়েছে খুন। এই যশোরে শামসুর রহমান, মুকুলকে হত্যা করা হয়েছে। খুলনায় মঞ্জুরুল ইমাম, মানিক শাহ, বালু, সাংবাদিকদের একে একে হত্যা করা হয়েছে। শুধু রক্ত আর হত্যা ছাড়া বিএনপি তো আর কিছুই দিতে পারেনি দেশের মানুষকে! নিজেরা লুটপাট করেছে। নিজেরা মানুষের অর্থপাচার করেছে।

রিজার্ভ নিয়ে সমালোচকদের জবাব দিয়ে আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘অনেকে এখন রিজার্ভ নিয়ে বিভিন্ন সমালোচনা করছে। অথচ আমাদের সরকার রিজার্ভ রেকর্ড পরিমাণ বাড়িয়েছে। আর কোনো সরকার রিজার্ভ বাড়াতে পারেনি। পর্যাপ্ত রিজার্ভ হাতে রেখেই সব কাজ করছি আমরা। রিজার্ভের কোনো সমস্যা নেই, আমাদের সব ব্যাংকে পর্যাপ্ত টাকা আছে। সামনের দিনেও কোনো সমস্যা হবে না।’

সরকারপ্রধান বলেন, ‘যারা জানতে চান রিজার্ভ কোথায় গেলো, তাদের বলছি, রিজার্ভ কোথাও যায়নি। মানুষের কাজে লেগেছে। যেহেতু যুদ্ধ লেগেছে, দাম বেড়েছে সবকিছুর। তারপরও আমরা খরচ করছি, আমদানি করছি; যাতে দেশের মানুষের খাদ্যের যেন ঘাটতি না হয়। কারও কোনও ধরনের সমস্যায় পড়তে না হয়। এজন্য দেশের সব মানুষকে বলে দিয়েছি, কোনও জমি যাতে খালি রাখা না হয়। পারলে একটা মরিচ গাছ লাগান, একটি টমেটো গাছ লাগান। এটি আমাদের সবার উপকারে আসবে।’

শেখ হাসিনা বলেন, এবার আমরা ক্ষমতায় এসে ভূমিহীনদের ঘর তৈরি করে দিয়েছি। তাই ৩৫ লাখ মানুষকে ঘর নির্মাণ করে দিয়েছি। ঘর পেয়ে মানুষের জীবন পাল্টে গেছে। কোনো মানুষ ভূমিহীন থাকবে না, ঠিকানাহীন থাকবে না উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতার আকাঙ্ক্ষা পূরণ করেছি।

এসময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জনসভায় উপস্থিত সবাইকে নৌকা মার্কায় ভোট দেওয়ার ওয়াদা করতে বলেন। তিনি বলেন, আগামী নির্বাচনে নৌকা মার্কায় ভোট দিবেন কি না, ওয়াদা করুন।

MRP/sharif