ধর্মীয় সম্প্রীতি দেশের ইতিহাস-ঐতিহ্যের অংশ

প্রকাশিত: ১৮-০৮-২০২২ ২০:৪৩

আপডেট: ১৯-০৮-২০২২ ১১:৪০

নিজস্ব প্রতিবেদক: ধর্মীয় বা জাতিগত ভেদাভেদের অজুহাত তুলে কেউ যাতে আমাদের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির এ পরিবেশ ক্ষুন্ন করতে না পারে সে ব্যাপারে সকলকে সজাগ থাকার আহ্বান জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।  জন্মাষ্টমী উপলক্ষ্যে হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের একটি প্রতিনিধি দল আজ বৃহস্পতিবার (১৮ই আগস্ট) সন্ধ্যায় বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির সাথে সাক্ষাৎ কালে তিনি এই আহবান জানান। 

রাষ্ট্রপতি বলেন, ধর্মীয়সম্প্রীতি বাংলাদেশের ইতিহাস ও ঐতিহ্যের অবিচ্ছেদ্য অংশ। তিনি বলেন, সকল ধর্মের মূল বাণী হচ্ছে মানুষের কল্যাণ।আদিকাল থেকেই এ দেশে প্রতিটি ধর্মীয় উৎসব সাধারণ মানুষের অংশগ্রহণে উৎসবমুখর পরিবেশে উদযাপিত হয়ে আসছে। 

তিনি আরো বলেন, করোনা মহামারি ও বিশ্বব্যাপী বর্তমান অর্থনৈতিক অবস্থার প্রেক্ষাপটে সাধারণ মানুষের জীবনযাত্রা সহজ করতে সরকার বিভিন্ন ধরনের প্রণোদনা দেয়ার পাশাপাশি বিভিন্ন কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে। সমাজের দরিদ্র জনগোষ্ঠী যাতে জন্মাষ্টমীর উৎসবে সামিল হতে পারে সেজন্য রাষ্ট্রপতি সকলের প্রতি সহযোগিতা ও সহমর্মিতার হাত বাড়িয়ে দেওয়ার আহ্বান জানান।

খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার, হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের চেয়ারম্যান ও ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মোঃ ফরিদুল হক খান এবং সংসদ সদস্য ড. বীরেন শিকদার, মনোরঞ্জন শীল গোপাল ও পংকজ দেবনাথ এসময় উপস্থিত ছিলেন।

 

MHS/shimul