মিয়ানমারের জান্তা সরকার আসিয়ানে নিষিদ্ধ

প্রকাশিত: ০৬-০৮-২০২২ ১৩:৪৬

আপডেট: ০৬-০৮-২০২২ ১৩:৪৬

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: মিয়ানমারের জান্তা সরকারের জন্য আসিয়ানের দুয়ার বন্ধের বিষয়ে মত দিয়েছেন সংস্থাটির পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা। সামরিক অভ্যুত্থানের ফলে সৃষ্ট সঙ্কট মোকাবিলায় সংস্থাটির ১৫ মাসের পুরনো পরিকল্পনায় নেপিদো অগ্রগতি না করা পর্যন্ত এ অবস্থা বহাল থাকবে।

নমপেনে অনুষ্ঠিত আসিয়ানের আঞ্চলিক বৈঠক শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান কম্বোডিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রাক সোখোন। খবর আল-জাজিরার।

২০২১ সালে মিয়ানমারে সামরিক অভ্যুত্থানে ক্ষমতা দখল করা সেনাপ্রধান মিন অং হ্লাইংয়ের সঙ্গে সম্মত হওয়া পাঁচ দফা ঐক্যমতের বিষয়ে কোনো অগ্রগতি না হওয়ায় স্থানীয় সময় শুক্রবার আসিয়ানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা সমালোচনা করেন। আর নভেম্বরে অনুষ্ঠেয় আঞ্চলিক সম্মেলনের আগে স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেশন কাউন্সিলকে (এসএসি) এ বিষয়ে পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য বলা হয়েছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা জানান, তারা ‘পাঁচ দফা ঐক্যমতের বিষয়ে সামান্য অগ্রগতি এবং সময়মতো ও সম্পূর্ণভাবে এটি বাস্তবায়নে নেপিদোর প্রতিশ্রুতির অভাবে গভীরভাবে হতাশ’।

মিয়ানমার ২০২১ সামরিক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে যখন নির্বাচিত নেতা অং সাং সু চি ও অন্য শীর্ষ কর্মকর্তাদের গ্রেপ্তার করে তখন থেকেই গভীর সংকটে পতিত হয়। এ অভ্যুত্থানের কারণে ব্যাপক আন্দোলন শুরু হয় দেশজুড়ে। গড়ে উঠে অভ্যুত্থান বিরোধী সশস্ত্র গোষ্ঠী। যদিও এ গোষ্ঠীকে ঠেকাতে নৃশংস পন্থা অনুসরণ করছে সেনাবাহিনী। 

অভ্যুত্থানের পর থেকে ইতোমধ্যে দুই বেশি মানুষকে হত্যা করা হয়েছে।  তবে গত মাসে চার রাজনৈতিক বন্দির ফাঁসি কার্যকরের পর থেকে পরিস্থিতি আরও ঘোলাটে হয়ে গেছে।

এদিকে আসিয়ানের দাবি প্রত্যাখ্যান করার কথা জানিয়েছে মিয়ানমারের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

 

AR/shamim