উত্তরবঙ্গের মহাসড়কে কমেছে ভোগান্তি

প্রকাশিত: ০৭-০৭-২০২২ ১৪:৪৬

আপডেট: ০৭-০৭-২০২২ ১৫:৫০

ডেস্ক রিপোর্ট: ঈদযাত্রায় উত্তরবঙ্গের মহাসড়কে স্বস্তির আভাস ও ভোগান্তির শঙ্কা দুই-ই রয়েছে। যদিও ভোগান্তি চরম আকার ধারণ করার আশঙ্কা কম। সিরাজগঞ্জে নবনির্মিত নলকা সেতুর দু'টি লেন খুলে দেয়ায় হাটিকুমরুল গোলচত্ত্বরকে ঘিরে যানজট কম হবে। তবে বগুড়া থেকে রংপুর পর্যন্ত চারলেনের কাজ চলমান থাকায় এই পথে ভোগান্তি হতে পারে গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ হয়ে যাওয়া উত্তরের যাত্রীদের। এদিকে, ঈদযাত্রা নির্বিঘ্ন করতে মহাসড়কে তৎপরতা বাড়িয়েছে হাইওয়ে পুলিশ।

উত্তরবঙ্গের প্রবেশদ্বার সিরাজগঞ্জের হাটিকুমরুল গোলচত্ত্বর মহাসড়ক দিয়ে প্রতিদিন উত্তর ও দক্ষিণাঞ্চলের ২৭টি জেলার যানবাহন চলাচল করে। ঈদে গাড়ির সংখ্যা বেড়ে যায় কয়েকগুন। এই এলাকা ঘিরে যাত্রী ও চালকদের ঘণ্টার পর ঘণ্টা দুর্ভোগ যেনো নিয়মিত হয়ে দাঁড়িয়েছিল। এবার বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিমপাড় থেকে হাটিকুমরুল পর্যন্ত ১৯ কিলোমিটার সড়ক মেরামত ও গুরুত্বপূর্ণ নলকা সেতু খুলে দেওয়ায় যানজট কম হবে বলে মনে করছেন চালকরা।

ঈদে ঘরমুখো মানুষের যাত্রা নির্বিঘ্ন করা ও সড়কে যানজট এড়াতে তৎপরতা বাড়িয়েছে হাইওয়ে পুলিশ। তবে বগুড়া থেকে রংপুর পর্যন্ত চারলেনের কাজ চলমান থাকায় এই ঈদেও ভোগান্তিতে পড়তে যাচ্ছে উত্তরের ৮ জেলার মানুষ। ৩২ কিলোমিটারের প্রায় সব অংশ সম্প্রসারিত হলেও গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা সদর ও চৌমাথা সরু থাকায় এই এলাকায় যানজটের শংকা রয়েছে। ঢাকা-দিনাজপুর মহাসড়কের বেহাল দশা ভোগান্তি বাড়াবে যাত্রীদের।

গোবিন্দগঞ্জ মোড় ছাড়াতে পারলে রংপুর পর্যন্ত চারলেনের অনেক জায়গা স¤প্রসারণ করায় যানবাহন চলাচলে খুব একটা ভোগান্তি হবে না বলে মনে করছে হাইওয়ে পুলিশ ও সড়ক বিভাগের সংশ্লিষ্টরা।

SAI/sharif