বাজারে কমেনি ভোজ্য তেলের দাম

প্রকাশিত: ২৭-০৬-২০২২ ১৪:৫৯

আপডেট: ২৭-০৬-২০২২ ২১:৩৮

নিজস্ব প্রতিবেদক: তেলের বাজারে অস্থিরতার মধ্যে গতকাল প্রতি লিটার ৭ টাকা কমানোর ঘোষণা দিলেও তার প্রভাব পড়েনি রাজধানীর খুচরা ও পাইকারি বাজারে। বিক্রি হচ্ছে বাড়তি দামেই। ব্যবসায়ীদের দাবি নতুন চালান না আসলে দাম কমানো সম্ভব নয়। এদিকে, তেলের দাম না কমানোয় ক্ষুব্ধ সাধারণ ক্রেতারা। ভোক্তা অধিকার বিষয়টি দেখার কথা থাকলেও বাজার তদারকিতে দেখা মেলেনি তাদের। 

গেলো বছরের শুরু থেকেই অস্থির ভোজ্যতেলের বাজার। আন্তর্জাতিক বাজারে দাম বাড়ায় এ বছরের ৫ই মে সয়াবিন তেল ৩৮ টাকা বাড়িয়ে ১৯৮ টাকা নির্ধারণ করে সরকার। এরপর রাশিয়া-ইউক্রেণ যুদ্ধের কারণে গত ৯ই জুন আরেক দফা দাম বাড়ানো হয় সয়াবিন তেলের। সে সময় প্রতি লিটার ৭ টাকা বাড়িয়ে ২০৫ টাকা নির্ধারণ করা হয়। 

তবে, সম্প্রতি আন্তর্জাতিক বাাজারে তেলের দাম কমায় রোববার লিটার প্রতি ৭ টাকা কমানোর ঘোষণা দেয় ভেজিটেবল অয়েল রিফাইনার্স অ্যান্ড বনস্পতি ম্যানুফ্যাকাচারার্স অ্যাসোসিয়েশন। নতুন দাম অনুযায়ী খোলা সয়াবিন ১৮০ এবং বোতলজাত সয়াবিন তেলের মূল্য ১৯৯ টাকা নির্ধারণ করা হয়। ঘোষণা অনুযায়ী আজ থেকে কার্যকর হওয়ার কথা থাকলেও তার কোনো প্রভাব পড়েনি বাজারে। 

ক্রেতারা বলছেন, নতুন মূল্য নির্ধারণ হলেও তা কার্যকর না হওয়া দুঃখজনক। সয়াবিন তেলের অস্থিরতা কমাতে সরকারকে আরও কঠোর হওয়ার দাবি জানান সাধারণ ক্রেতারা।

নির্ধারিত দামের চেয়ে বেশি দামে তেল বিক্রি করা হলে ভোক্তা অধিকার আইনে ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলা হলেও এদিন সরকারের সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে বাজার মনিটরে কাউকে পাওয়া যায়নি। 

 

rocky/prabir