স্বপ্নের পদ্মা সেতুতে যান চলাচল শুরু

প্রকাশিত: ২৬-০৬-২০২২ ০৮:০২

আপডেট: ২৬-০৬-২০২২ ২৩:০০

এস এম সুমন: স্বপ্ন ছোঁয়ার অপেক্ষা ফুরিয়েছে, যান চলাচলের জন্য খুলে দেয়া হয়েছে স্বপ্নের পদ্মা সেতু। আজ (রোববার) সকাল থেকে নির্ধারিত টোল পরিশোধ করে পদ্মা সেতু দিয়ে চলাচল করছে বিভিন্ন ধরণের যানবাহন। প্রথম দিনেই সেতু দিয়ে পদ্মা পাড়ি দিতে এসেছেন অনেকে। দক্ষিণাঞ্চলসহ বিভিন্ন জেলার মানুষ যানবাহনে চড়ে আসেন সেতুর টোল প্লাজায়। সকালের দিকে কিছুটা চাপ থাকলেও পরে তা কমে যায়। ফেরি ও লঞ্চের ঝক্কিঝামেলা ছাড়া মুহূর্তেই পদ্মা নদী পাড়ি দেয়ার আনন্দে উচ্ছ¡সিত এই পথের যাতায়াতকারীরা। 

পদ্মা সেতুর ওপর দিয়ে ছুটে চলেছে গাড়ি। আজ (রোববার) ভোরের আলোর সাথে সাথে শুরু হয় সেতুর ওপর দিয়ে যানবাহন চলাচল। সবার আগে সেতুতে ওঠার আশায় আগে থেকেই অনেকে অপেক্ষা করে সেতুর দুই প্রান্তের সংযোগ সড়কে ও টোল প্লাজা এলাকায়। অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে ভোর ৬টায় খুলে যায় টোল প্লাজার নিরাপত্তা দরজা। শুরু হয় সেতুতে যানবাহন চলাচল।

প্রায় সোয়া ছয় কিলোমিটার দীর্ঘ এই পদ্মা সেতুর মাধ্যমে দেশের দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের সঙ্গে রাজধানীর সরাসরি সড়ক যোগাযোগ স্থাপিত হল। এই পথে ২১টি জেলায় যাতায়াতকারী  যানবাহন এতদিন ফেরিতে পারাপার হতো। এখন চলছে সেতুর উপর দিয়ে। পদ্মা সেতু খুলে দেয়ার প্রথম দিন এই পথের নিয়মিত যানবাহনের চেয়ে দর্শণার্থীদের যানবাহনই ছিল বেশি। ফলে সেতুর মাওয়া প্রান্তে প্রায় দুই কিলোমিটার লম্বা যানজট তৈরি হয়।

রোববার সকাল থেকেই নির্ধারিত টোল দিয়ে পদ্মা সেতু পার হচ্ছে বিভিন্ন ধরণের যানবাহন। সেতু দিয়ে সাধারণের চলাচল শুরু হওয়ায় প্রথম দিনেই সেতু পাড়ি দিতে এসেছেন অনেকে। যাদের যানবাহন নেই কিন্তু সেতু দেখতে এসেছেন এমন লোকদের পারাপার করছে ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেল চালকরা। পদ্মা সেতু চালুর মধ্য দিয়ে নদী পারাপারে ফেরি ও ঘাটের ভোগান্তি কমে যাওয়ার পাশাপাশি অল্প সময়ে রাজধানীর সাথে যোগাযোগ স্থাপন হওয়ায় উচ্ছ্বসিত এই পথের যাতায়াতকারীরা। 

অপেক্ষার প্রহর শেষ। পদ্মা সেতু দিয়ে শুরু হলো যানবাহন পারাপার। মানুষের উচ্ছ্বাস তো আছেই, আনন্দ ছড়িয়েছে প্রকৃতির মাঝেও। রৌদ ঝলমলে দিন পূর্ণ আলোয় আলোয়। মেঘের হাসিও জানান  দিচ্ছে স্বপ্নপূরণের উচ্ছ্বাস।

এর আগে গতকাল (শনিবার) খরস্রোতা পদ্মা নদীকে সেতুর মুকুট উপহার দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি নিজেই পদ্মা সেতুর স্বপ্ন দেখিয়েছেন এবং সফল নির্মাণ পর্ব শেষে  সেই সেতুর দ্বার খুলে দিয়েছেন নিজের হাতে। মুন্সিগঞ্জের মাওয়া প্রান্তে পদ্মা সেতুর উদ্বোধন করে তিনি বলেন, এই সেতু বাঙ্গলীর সাহস, গর্ব, সক্ষমতা, আত্মমর্যাদা আর শক্তির প্রতীক। সেতু নির্মাণে দেশবাসীর সাহস যোগানো ও সহযোগীতার জন্য কৃতজ্ঞতা জানান প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, জনগণের শক্তিই বড় শক্তি। 

SAI/shamim