পদ্মা সেতুর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত: ২৫-০৬-২০২২ ০৯:২৪

আপডেট: ২৫-০৬-২০২২ ১২:৪৩

নিজস্ব প্রতিবেদক: সব প্রতিকূলতা উপেক্ষা করে কিছুক্ষণের মধ্যেই স্বপ্নের পদ্মা সেতুর উদ্ধোধন। পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে সুধীজনে মুখরিত মাওয়া প্রান্তে সেতুর উদ্বোধনস্থল। এরইমধ্যে আমন্ত্রিত রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ, বাংলাদেশে নিযুক্ত বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত, সাংবাদিক, শিক্ষকসহ নানা শ্রেণি-পেশার অতিথিরা এসে পৌঁছেছেন। মাওয়া প্রান্তের সুধী সমাবেশের প্যান্ডেল এখন অতিথিতে পূর্ণ। সেতু উদ্বোধন করতে ইতিমধ্যে সমাবেশে যোগ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শনিবার (২৫শে জুন) বেলা ১০টায় প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী হেলিকপ্টার মাওয়া পৌঁছায়। এরপর প্রধানমন্ত্রী সমাবেশস্থলে নিজ আসন গ্রহণ করেন। 

রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ সাড়ে তিন হাজার নাগরিককে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে এই  সুধীজন সমাবেশে। ভোর সাড়ে ৬টা থেকে শুরু হয় অতিথিদের আগমন। এছাড়াও আওয়ামী লীগ নেতা ও সরকারের পদস্থ কর্মকর্তারাও সমাবেশে যোগ দিয়েছেন। 

দিনের কার্যসূচি অনুযায়ী, প্রধানমন্ত্রী মুন্সিগঞ্জের মাওয়া প্রান্তে পদ্মা সেতুর উদ্বোধন করবেন। এরপর বেলা ১১টায় পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে স্মারক ডাক টিকিট, স্যুভেনির শিট, উদ্বোধন-খাম ও সিলমোহর প্রকাশ করবেন। ১১টা ১০ মিনিটে টোলপ্লাজার উদ্দেশে যাত্রা করবেন প্রধানমন্ত্রী। সেখানে টোল দিয়ে ১১টা ১৫ মিনিটে মাওয়া প্রান্তে উদ্বোধনী ফলক ও ম্যুরাল-১ উন্মোচন এবং মোনাজাতে অংশ নেবেন।

১১টা ২৩ মিনিটে সড়ক পথে মুন্সিগঞ্জের মাওয়া প্রান্তের ম্যুরাল চত্বর হতে শরীয়তপুরের জাজিরা প্রন্তের উদ্দেশ্যে যাত্রা করবেন। বহুল কাঙ্ক্ষিত পদ্মা সেতু পার হয়ে তিনি ১১টা ৪৫ মিনিটে শরীয়তপুরের জাজিরা প্রান্তে উদ্বোধনী ফলক ও ম্যুরাল-২ উন্মোচন এবং মোনাজাতে অংশ নেবেন।

সেখান থেকে ১১টা ৫০ মিনিটে মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার কাঁঠালবাড়ির উদ্দেশে সড়ক পথে যাত্রা করবেন। বেলা ১২টায় কাঁঠালবাড়িতে আওয়ামী লীগের জনসভায় অংশ নেবেন।

দুপুর ২টা ৩৫ মিনিটে জনসভা শেষ করে শরীয়তপুরের জাজিরা প্রান্তের সার্ভিস এরিয়া-২ এর উদ্দেশ্যে সড়কপথে যাত্রা করবেন প্রধানমন্ত্রী। সেখানে কিছু সময় অবস্থান করবেন। এরপর জাজিরা প্রান্ত হতে হেলিকপ্টারযোগে ঢাকার উদ্দেশে রওনা হবেন।

 

MSI/sharif