লঞ্চের হাইড্রোলিক হর্ণে বিরক্ত যাত্রীরা

প্রকাশিত: ২১-০৬-২০২২ ০৮:৫২

আপডেট: ২১-০৬-২০২২ ০৮:৫৪

পটুয়াখালী সংবাদদাতা: পটুয়াখালী-ঢাকা নৌ রুটে চলাচলকারী যাত্রিবাহী লঞ্চগুলোতে ব্যবহার করা হচ্ছে হাইড্রোলিক হর্ণ। এতে যাত্রী এবং ঘাটের আশপাশে বসবাসকারীরা অতীষ্ঠ। চিকিৎসকরা বলছেন শব্দ দূষনের কারণে মানুষের শ্রবণশক্তি ও মস্তিস্কের ক্ষতি হয়। হাইড্রোলিক  হর্ণের অবৈধ ব্যবহার বন্ধে সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগের পক্ষ থেকে তেমন তোন পদক্ষেপ চোখে পরেনি।

প্রতিদিন পটুয়াখালী নদী বন্দরে তিন থেকে চারটি লঞ্চ আসে ও ছেড়ে যায়। যাত্রীদের আকৃষ্ট করতে বাজানো হয় বিকট শব্দের হাইড্রোলিক হর্ণ। এতে মারাত্মক শব্দ দূষণের কবলে পরেন লঞ্চঘাটের আশপাশের এলাকার মানুষ এবং যাত্রীরা ।

শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণ বিধিমালা ২০০৬ অনুসারে, আবাসিক এলাকায় দিনে ও রাতে শব্দের মাত্রা নির্ধারণ করা আছে। কিন্তু অকারণে ঘাটে উচ্চ শব্দে হাইড্রোলিক হর্ণ বাজানো হচ্ছে বলে অভিযোগ যাত্রীদের । 

উচ্চ শব্দ দূষণ মানব শরীরের জন্য মারাত্মক ঝুঁকির কারণ বলে জানান চিকিষকরা। 

এ বিষয়ে ক্যামেরার সামনে কথা না বললেও পটুয়াখালী অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন কর্তৃপক্ষ জানান, হাইড্রলিক হর্ণ যাতে লঞ্চঘাটে ব্যবহার করা না হয় সে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

NHK/ramen