শাহজালালে ই-গেট চালু, দ্রুততম সময়ে ইমিগ্রেশন

প্রকাশিত: ১৮-০৬-২০২২ ১৫:৩৪

আপডেট: ১৮-০৬-২০২২ ১৫:৪৩

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ই-পাসপোর্টের জন্য চালু হয়েছে ই-গেট। যাত্রীর পাসপোর্ট যাচাই করবে ই-গেট, ইমিগ্রেশনের বাকি কাজ সম্পন্ন হবে আগের মতোই। পুরো প্রক্রিয়া হবে সময় সাশ্রয়ী। তবে কেবল ই-পাসপোর্টধারী যাত্রীরা এর সুবিধা পাবেন। দক্ষিণ এশিয়ায় ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরেই প্রথম চালু হলো ই-গেট। নানা জটিলতা কাটিয়ে উদ্বোধনের ১১ মাস পর ৭ই জুন এটি চালু হয়েছে।

যাত্রী বৈধ পাসপোর্টধারী হলেই কেবল ই-গেটের প্রথম ফ্ল্যাপ ব্যারিয়ার খুলে যাবে। পরের ধাপে ক্যামেরায় যাত্রীর মুখ ও চোখ স্ক্যান চলছে। পাসপোর্টের সঙ্গে যাত্রীর স্ক্যান করা ছবি মিলে গেলে পরের ফ্ল্যাপ ব্যারিয়ার খুলবে। পাসপোর্ট অবৈধ কিংবা পাসপোর্টধারী অভিযুক্ত হলে, বিদেশযাত্রায় নিষেধাজ্ঞা থাকলে ব্যারিয়ার খুলবে না। ই-গেটে স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে পাসপোর্ট যাচাইয়ে হচ্ছে অল্প সময়ে। 

ই-গেট পার হওয়ার পর যাত্রীকে আগের মতোই যেতে হবে ইমিগ্রেশন ডেস্কে। এখানে ভিসাসহ বাকি তথ্য যাচাই করবে ইমিগ্রেশন কর্মকর্তা। তবে ই গেট ব্যবহারের সুযোগ পাবেন কেবল ই পাসপোর্টধারী যাত্রীরা। ইমিগ্রেশনের সার্ভারে তথ্যসংগ্রহের কাজ চলছে। সব তথ্য অর্ন্তভুক্তি শেষে আরো কম সময় লাগবে ইমিগ্রেশনে। 

শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ১৮টি ই-গেট স্থাপন করা হয়েছে। এরমধ্যে ১২টি বহির্গমন ও ৬টি আগমনী যাত্রীদের জন্য। এছাড়া চট্টগ্রামে শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর এবং ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ই গেট চালুর প্রক্রিয়া চলছে। 

KNR/sharif