আধুনিকায়ন হয়নি দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌবন্দর

প্রকাশিত: ২৩-০৫-২০২২ ০৮:৩২

আপডেট: ২৩-০৫-২০২২ ০৯:৪১

রাজবাড়ী সংবাদদাতা: নকশা পরিবর্তন ও ব্যয় দ্বিগুণ বাড়িয়ে প্রস্তাব পাঠানোয় বন্ধ রয়েছে দেশের গুরুত্বপূর্ণ দৌলতদিয়া- পাটুরিয়া নৌবন্দরের আধুনিকায়ন প্রকল্পের কাজ। ফলে আবারও ভয়াবহ ভাঙনের মুখে পড়তে চলেছে এখানকার লঞ্চ, ফেরিঘাটসহ আশপাশের জনপদ। ভাঙন প্রতিরোধে কোনো পদক্ষেপ না নেয়ায় আতঙ্কে দিন কাটছে নদীপাড়ের মানুষের। 

দেশের গুরুত্বপূর্ণ দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া ঘাটের মোট ছয় কিলোমিটার এলাকা স্থায়ীভাবে আধুনিকীকরনের জন্য গত বছরের জানুয়ারিতে দায়িত্ব পায় পানি উন্নয়ন বোর্ড। ৬৮০ কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়ে কাজটি সমাপ্ত করার দায়িত্ব পায় বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষ। কিন্তু নির্দিষ্ট সময়ে এ কাজ শুরু করা যায়নি।  

আবার সময়ের ব্যবধানে প্রায় দ্বিগুণ বেড়েছে প্রকল্প ব্যয় ও পরিবর্তন হয়েছে নকশা। এখন এ কাজে ব্যয় ধরা হয়েছে ১ হাজার ২৫০ কোটি টাকা। পাশাপাশি পানি উন্নয়ন বোর্ডের দেয়া নকশা বিশ্লেষণ করতে পাঠানো হয়েছে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে। সেই থেকে পুরো প্রকল্পের কাজ বন্ধ রয়েছে।

এদিকে ভাঙন রোধে কোন পদক্ষেপ না নেওয়ায় বিলিন হয়ে যাচ্ছে শত শত বিঘা ফসলী জমি ও অসংখ্য স্থাপনা। এতে আতঙ্কিত হয়ে পড়ছে নদী পাড়ের মানুষ। প্রতিবছর মাপঝোপ হলেও কাজ হচ্ছে না বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর।

কবে নাগাদ এর কাজ শুরু হবে, সে সম্পর্কে কোনো তথ্য দিতে পারছে না কেউই। রাজবাড়ী পানি উন্নয়ন বোর্ড উপবিভাগীয় প্রকৌশলী মো. আরিফুর রহমান অঙ্কুর জানালেন, নকশা পরিবর্তন ও প্রকল্প ব্যয় বাড়িয়ে অনুমোদন চাওয়ায় কিছুটা সময় ক্ষেপণ হচ্ছে। তবে বুয়েটে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে।

নদী ভাঙন রোধে দ্রুত সমাধান চাইছেন এলাকাবাসী।

SAI/ramen