মিয়ানমারে জান্তা আদালতে সাক্ষ্য দিলেন সু চি

প্রকাশিত: ০১:০১, ২৭ অক্টোবর ২০২১

আপডেট: ০১:০১, ২৭ অক্টোবর ২০২১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: মিয়ানমারের জনগনকে আন্দোলনের জন্য উস্কে দেয়ার অভিযোগ আদালতে অস্বীকার করেছেন দেশটির গণতন্ত্রপন্থী নেত্রী অং সান সু চি।
গত পহেলা ফেব্রুয়ারির অভ্যুত্থানে আটকের পর মঙ্গলবার প্রথম আদালতে সাক্ষ্য দিলেন তিনি। একটি মামলায় রাজধানী নেপিদোতে বিশেষভাবে স্থাপন করা আদালতে সাক্ষ্য দেন সু চি। সু চির দল একটি চিঠি প্রকাশ করে আন্তর্জাতিক সংগঠনকে জান্তার সঙ্গে সহযোগিতা না করার অহ্বান জানিয়ে মিয়ানমারের নাগরিকদের আন্দোলনে উস্কে দিয়েছে বলে অভিযোগ আনা হয়।
সু চি’র মামলা সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু জানা যায়নি। তাঁর আইনজীবী জানিয়েছেন, এ মাসের শুরুর দিকে কোনও তথ্য প্রকাশ না করার বিষয়ে সামরিক কর্তৃপক্ষর কাছ থেকে আদেশ পেয়েছেন তিনি।
ফেব্রুয়ারিতে সামরিক অভ্যুত্থানের পর মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর অং সান সু চি ও ক্ষমতাচ্যুত প্রেসিডেন্ট উইন মিন্ট-এর বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি মামলা দায়ের হয়। সু চি’কে একটি অজ্ঞাতস্থানে রাখা হয়েছে। তাঁর বিরুদ্ধে করোনা ভাইরাসের নিয়ম ভঙ্গ, অবৈধভাবে আমদানি করা ওয়াকিটকি রাখা, ঘুষ গ্রহণ, জনগণকে উস্কানি দেয়াসহ ১০টি অভিযোগ এনেছে জান্তা সরকার।

 

TEJ/TEJ

এই বিভাগের আরো খবর

নাইজেরিয়ায় ১০ লাখ ডোজ টিকা নষ্ট

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: নাইজেরিয়ায়...

বিস্তারিত
তিন মিনিটের জুম কলে ৯শ’ কর্মী ছাঁটাই !

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: মাত্র তিন মিনিটের...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *