ক্লিনফিড ছাড়া বিদেশি চ্যানেল চলবে না- তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত: ০৬:২৬, ০২ সেপ্টেম্বর ২০২১

আপডেট: ০৬:২৬, ০২ সেপ্টেম্বর ২০২১

নিজস্ব প্রতিবেদক: অক্টোবর মাস থেকে দেশে ক্লিনফিড ছাড়া কোনো বিদেশি চ্যানেল সম্প্রচার করতে পারবে না বলে জানিয়েছেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী হাছান মাহমুদ। নিয়ম অমান্য করলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান তিনি। আজ (বৃহস্পতিবার) সচিবালয়ে অ্যাটকো, টেলিভিশন চ্যানেল ডিস্ট্রিবিউটর ও ক্যাবল অপারেটর প্রতিনিধিদের সাথে বৈঠকে এ কথা বলেন তথ্যমন্ত্রী। 

এছাড়া আগামী ৩০শে নভেম্বরের মধ্যে ঢাকা ও চট্টগ্রামের কেবল অপারেটরদের সিস্টেম ডিজিটালাইজড করা হবে বলেও জানান তিনি। এ বিষয়ে পরিপত্র জারির মাধ্যমে গ্রাহককে অবহিত করা হবে বলেও জানান তথ্যমন্ত্রী।

মন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের দেশে যেসব বিদেশি চ্যানেল আছে, আইন অনুযায়ী তারা ক্লিনফিড চালাতে বাধ্য, কিন্তু বারবার তাগাদা দেয়া সত্ত্বেও ওই সমস্ত চ্যানেল তাদের এন্ড থেকে ক্লিনফিড করে এখানে পাঠাচ্ছে না।

ক্লিনফিড নিশ্চিত করা হলে দেশে কোনো বিদেশি টেলিভিশন চ্যানেলের সম্প্রচারে বিদেশি কোনো বিজ্ঞাপন বা অন্যান্য কোনো বাণিজ্যিক কনটেন্ট থাকবে না। বিষয়টি নিশ্চিত করতে দীর্ঘদিন ধরে দাবি জানিয়ে আসছিল অ্যাটকো, টিভি চ্যানেল ডিস্ট্রিবিউটর ও কেবল অপারেটররা।

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা আজকে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছি এবং ঐক্যমতে পৌঁছেছি যে ৩০ সেপ্টেম্বরের পরে আমাদের দেশে কোনো অবস্থাতেই ক্লিনফিড ছাড়া বিদেশি চ্যানেলকে আমরা চালাতে দিতে পারি না এবং ৩০ সেপ্টেম্বরের পরে এক্ষেত্রে আইন প্রয়োগ করা হবে।’

ঢাকা ও চট্টগ্রামে ১ ডিসেম্বর থেকে কেবল অপরাটেরদের ডিজিটাল সেটাপ বক্সের মাধ্যমে টেলিভিশন সংযোগ দিতেও নির্দেশ নিয়েছেন মন্ত্রী। এ বছরের ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে ঢাকা এবং চট্টগ্রাম শহরে কেবল নেটওয়ার্কিং সিস্টেম ডিজিটালাইজড করার কথা থাকলেও করোনার কারণে সেটি করা সম্ভব হয়নি বলে জানান তিনি।

মন্ত্রী বলেন, ‘আজকে আমরা আলোচনা করে সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছি যে, ঢাকা এবং চট্টগ্রাম শহরে ৩০ নভেম্বরের মধ্যে কেবল অপারেটিং সিস্টেম ডিজিটালাইজড করা হবে। সেটি বাস্তবায়ন করার ক্ষেত্রে সরকারের পক্ষ থেকে একটি পরিপত্র জারি করা হবে গ্রাহকদের অবহিত করার জন্য। ৩০ নভেম্বরের পর ঢাকা ও চট্টগ্রামে যে অ্যানালগ সম্প্রচার সিস্টেম আছে সেটা কাজ করবে না। ডিজিটাল সেটাপ বক্সের মাধ্যমে সম্প্রচার হবে।’

পরিপত্র জারির ব্যাখ্যা করে মন্ত্রী বলেন, ‘ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম রেডি, কিন্তু দর্শক এন্ডে যদি সেটাপ বক্স দেয়া না হয়, দর্শকরা যদি সেটি না নেয়, তাহলে তো সেটা বাস্তবায়ন করা কঠিন।’

সকল বিভাগীয় ও মেট্রোপলিটন শহর এবং কক্সবাজার, রাঙামাটি, কুমিল্লা, কুষ্টিয়া, বগুড়া, দিনাজপুরকে ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে ডিজিটালাইজড করতে হবে বলেও জানান মন্ত্রী। বলেন, বাকি জেলাগুলোর বিষয়ে নভেম্বরে বৈঠক করে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

MRP/MSI

এই বিভাগের আরো খবর

বাধা উঠলো বিএফইউজে নির্বাচন অনুষ্ঠানে

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাংলাদেশ ফেডারেল...

বিস্তারিত
রফিকুল হক দাদুভাই আর নেই

নিজস্ব প্রতিবেদক: প্রবীণ সাংবাদিক,...

বিস্তারিত
করোনায় প্রাণ গেল সাংবাদিক অরুণ বসুর

নিজস্ব প্রতিবেদক: করোনাভাইরাসে...

বিস্তারিত
সরকারকে অ্যাটকোর সাধুবাদ

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশীয় টেলিভিশন...

বিস্তারিত
বগুড়ায় তিন প্রবীণ সাংবাদিককে পদক প্রদান

বগুড়া সংবাদদাতা: বগুড়ায় সাংবাদিক...

বিস্তারিত
গণমাধ্যমের উপর তালেবানের বিধিনিষেধ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: আফগানিস্তানে...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *