স্কুলের পাঠদান ঘরে দিচ্ছেন একদল শিক্ষক

প্রকাশিত: ০৮:৪১, ২৮ জুন ২০২১

আপডেট: ০৯:০৬, ২৮ জুন ২০২১

হিলি সংবাদদাতা: করোনায় সারাদেশের শিক্ষা-কার্যক্রম যখন স্থবির, তখন দিনাজপুরের সীমান্তবর্তী এলাকায় প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের শিক্ষা কার্যক্রম চলছে একটু ভিন্ন ভাবে। শিক্ষকরা বলছেন, অনলাইনে ক্লাস না করেও পিছিয়ে নেই এ এলাকার শিক্ষার্থীরা। কি সেই বিশেষ পদ্ধতি? 

করোনার কারণে সারাদেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ। শিক্ষার্থীদেরকে পাঠদানের সাথে যুক্ত রাখতে অনলাইনে ক্লাস নেয়া হচ্ছে। তবে, অর্থনৈতিক অস্বচ্ছলতা ও প্রযুক্তিগত সুবিধা না থাকার কারণে অনলাইন ভিত্তিক শিক্ষা-কার্যক্রমের বাইরে রয়ে গেছে অনেক শিক্ষার্থী। এমনই বাস্তবতা ছিলো দিনাজপুরের সীমান্তবর্তী হাকিমপুর উপজেলার প্রায় ৪৬টি প্রাথমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৯০ শতাংশ শিক্ষার্থীর। তবে সেই বাস্তবতা বদলে গেছে।

বিশেষ ব্যবস্থায় পাঠদান শুরু হয়েছে সেখানে। অনলাইনে নেয়া ক্লাসগুলো রেকর্ড করা হচ্ছে মেমরি কার্ডে। পরে তা পৌঁছে দেয়া হচ্ছে শিক্ষার্থীদের বাড়িতে। সাথে দেয়া হচ্ছে হোম ওয়ার্ক। আর এ কাজটি করছেন শিক্ষকরাই।

উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা জানান, এ ধরনের ব্যবস্থা নেয়ায় দেশের অন্যসব শিক্ষার্থীর তুলনায় তেমন একটা পিছিয়ে থাকবে না সীমান্তবর্তী এলাকার এসব শিশু। 

হাকিমপুরের মতন এমন শিক্ষা পদ্ধতি দেশব্যাপী চালু করা গেলে, করোনা অতিমারীর এই সময়ে প্রাথমিক শিক্ষা-কার্যক্রম বেগবান হবে বলে মনে করছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।  তিমারির এই সময় কাটিয়ে শিক্ষার্থীরা দ্রুত ক্লাসে ফিরতে পারবে বলে আশা করছে অবিভাবকরা।

RAT/MSI

এই বিভাগের আরো খবর

মাদারীপুরে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

মাদারীপুর  সংবাদদাতা: মাদারীপুরের...

বিস্তারিত
প্রধানমন্ত্রী দেশে ফিরলেই পায়রা সেতুর উদ্বোধন

পটুয়াখালী সংবাদদাতা: প্রধানমন্ত্রী...

বিস্তারিত
ভিয়েতনামে কিউবার টিকা ব্যবহারের অনুমোদন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: কিউবার করোনার...

বিস্তারিত
তেল-চিনির দাম বাড়ার পেছনে যে ব্যাখ্যা মন্ত্রীর

রংপুর সংবাদদাতা: আন্তর্জাতিক বাজারে...

বিস্তারিত
দিনাজপুরে দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক

দিনাজপুর সংবাদদাতা: দিনাজপুরের...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *