‘ভারতের বন্ধুত্ব চিরদিন মনে রাখবে বাঙ্গালী’

প্রকাশিত: ১০:৩৫, ২২ জুন ২০২১

আপডেট: ১১:২৬, ২২ জুন ২০২১

কাজী বাপ্পা: জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর বছর ছিল ২০২০। তাঁর শততম জন্মবার্ষিকীর দিন, ১৭ই মার্চ থেকে শুরু হয়েছে মুজিববর্ষ উদযাপন, যা চলছে এই স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীর বছরও। স্বাধীন বাংলাদেশ ও বঙ্গবন্ধু একাত্মা। তিনিই একাত্তরের ২৬ শে মার্চ স্বাধীনতা ঘোষণা করেন। তাঁর ডাকেই মানুষ স্বাধীনতার জন্য সশস্ত্র যুদ্ধে ঝাপিয়ে পড়েছিল। শেখ মুজিবুর রহমানের বিরল ঐতিহাসিক নেতৃত্বের সেই উত্তাল আন্দোলন ও সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধের দিনগুলো নিয়ে মুজিববর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীর বছরজুড়ে বৈশাখী সংবাদের বিশেষ ধারাবাহিক আয়োজন- যাঁর ডাকে বাংলাদেশ। 

একাত্তর সালে মুক্তিযুদ্ধরত বাংলাদেশ সরকারের মন্ত্রিপরিষদের ভূমিকা ইতিহাসের বড় গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়।  একাত্তরের ১৭ই এপ্রিল সরকার শপথ গ্রহণের পর থেকে আন্তর্জাতিকভাবে বঙ্গবন্ধুর স্বাধীনতা ঘোষণা  করা বাংলাদেশের পক্ষে জনসমর্থন ও আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি আদায়, মুক্তিযুদ্ধ পরিচালনাসহ বহু দায়িত্ব মন্ত্রিপরিষদের কাঁধে ছিল। 

১৯৭১ সালের ২২শে জুন বাংলাদেশ সরকারের মন্ত্রিপরিষদের একটি সভা হয়। সেখানে বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমদ। বলেন, “আমাদের একমাত্র উদ্দেশ্য মাতৃভূমিকে শত্র“মুক্ত করা। এবং ভারতে আশ্রয়গ্রহণকারী স্বদেশবাসীদের বাংলাদেশে ফিরিয়ে আনা। সেজন্য শরীরের শেষ রক্তবিন্দু ঢেলে দিতে আমরা পিছ পা হবো না। আমরা আগেও জনগণের অধিকার জন্য লড়েছি, এখনো লড়াই করে যাবো। তবে ভারতের জনগণের উদারতা ও বন্ধুত্বের কথা বাঙ্গালীরা চিরদিন মনে রাখবেন।” (সূত্রঃ আনন্দবাজার পত্রিকা)

HIB/MSI

এই বিভাগের আরো খবর

'দলের কর্মীদের স্নেহ করতেন বঙ্গবন্ধু'

বিউটি সমাদ্দার: সব ভেদাভেদ ভুলে দেশের...

বিস্তারিত
'মানুষকে আকর্ষণ করার গুণ ছিল বঙ্গবন্ধুর'

গোলাম মোর্শেদ: সব ভেদাভেদ ভুলে দেশের...

বিস্তারিত
'পাকিস্তানিদের বৈষম্য তুলে ধরেছিলেন বঙ্গবন্ধু'

বিউটি সমাদ্দার: সব ভেদাভেদ ভুলে দেশের...

বিস্তারিত
‘বাংলাদেশের প্রথম ডাকটিকেট প্রকাশের ঘোষণা হয়’

কাজী বাপ্পা: জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *