আমেরিকার সহায়তা চেয়ে বার্তা পাঠান ইয়াহিয়া খান

প্রকাশিত: ১২:১৮, ১০ মে ২০২১

আপডেট: ১২:১৮, ১০ মে ২০২১

কাজী বাপ্পা: জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর বছর ছিল ২০২০। তাঁর শততম জন্মবার্ষিকীর দিন, ১৭ই মার্চ থেকে শুরু হয়েছে মুজিববর্ষ উদযাপন, যা চলছে এই স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীর বছরও। স্বাধীন বাংলাদেশ ও বঙ্গবন্ধু একাত্মা। তিনিই একাত্তরের ২৬শে মার্চ স্বাধীনতা ঘোষণা করেন। তাঁর ডাকেই মানুষ স্বাধীনতার জন্য সশস্ত্র যুদ্ধে ঝাপিয়ে পড়েছিল। শেখ মুজিবুর রহমানের বিরল ঐতিহাসিক নেতৃত্বের সেই উত্তাল আন্দোলন ও সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধের দিনগুলো নিয়ে মুজিববর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীর বছরজুড়ে বৈশাখী সংবাদের বিশেষ ধারাবাহিক আয়োজন- যাঁর ডাকে বাংলাদেশ। 

১৯৭১ সালের ১০ই মে ছিল বৌদ্ধ ধর্মানুসারীদের ভগবান গৌতম বুদ্ধের জন্মতিথি। এ উপলক্ষ্যে উপমহাদেশের বিভিন্ন স্থানে উদযাপিত হয় বৈশাখী পূর্ণিমা। একাত্তরের এদিন রাতে, বৈশাখী পূর্ণিমা পালনকালে কুমিল­া ও চট্টগ্রামের বৌদ্ধ স¤প্রদায়ের ওপর অমানবিক নির্যাতন এবং গণহত্যা চালায় পাকিস্তানী সেনাবাহিনী। পাশাপাশি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বাধীনতা ঘোষণা করা বাংলাদেশের আরও  অনেক এলাকায় বাঙালি নিধনযজ্ঞ ও লুন্ঠন অব্যাহত রাখে পাকিস্তানী সেনারা। গোপালগঞ্জ শহরের কয়েকটি বাড়ি দখল করে নিজেদের ঘাটি তৈরি করে পাকিস্তানী দখলদার বাহিনী। স্থানীয় ৩টি ব্যাংক ও ট্রেজারি লুট করে। মানবতাবিরোধী এসব বর্বরতায় পাকিস্তানী হানাদারদের স্থানীয় সহযোগী শান্তি কমিটির সদস্য ও রাজাকাররা সহায়তা করে।

একাত্তরের এদিন এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বাংলাদেশের অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি সৈয়দ নজরুল ইসলাম ঘোষণা করেন, বাংলাদেশ হবে সমাজতান্ত্রীক। বৃহৎ শিল্প প্রতিষ্ঠানগুলো জাতীয়করণ করা হবে এবং ভূমি রাজস্ব ব্যবস্থা বাতিল করা হবে।

বাংলাদেশের বিরুদ্ধে যুদ্ধে পাকিস্তানকে সহায়তা করার আহবান জানিয়ে একাত্তরের এদিন আমেরিকার প্রেসিডেন্ট রিচার্ড নিক্সনের কাছে বার্তা পাঠান দেশটির সামরিক শাসক ইয়াহিয়া খান। সেই বার্তা পৌঁছে দেন ইয়াহিয়া খানের বিশেষ দূত এম এম আহমদ। 

কলকাতায় অধ্যাপক আজিজুর রহমান মলি­ক এবং চলচ্চিত্র নির্মাতা জহির রায়হানের নেতৃত্বে একাত্তরের ১০ই মে “বাংলাদেশ লিবারেশন কাউন্সিল অব ইন্টেলিজেন্সীয়া” গঠন করা হয়। বাংলাদেশের বুদ্ধিজীবী, শিল্পী ও অন্য সাংস্কৃতিক কর্মীদের সংগঠিত করে মুক্তি সংগ্রামের পক্ষে কাজ করা ছিল এই কমিটির উদ্দেশ্য। 

HIB/MSI

এই বিভাগের আরো খবর

‘ব্যক্তি জীবনে ভিন্ন মেজাজের ছিলেন বঙ্গবন্ধু’

গোলাম মোর্শেদ: সব ভেদাভেদ ভুলে দেশের...

বিস্তারিত
‘ভারতের বন্ধুত্ব চিরদিন মনে রাখবে বাঙ্গালী’

কাজী বাপ্পা: জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ...

বিস্তারিত
'আমরা লড়াই করেছি স্বাধীনতার জন্য'

কাজী বাপ্পা: জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ...

বিস্তারিত
‘৭ই মার্চের ভাষণের প্রভাব ছিলো জীবনে’

গোলাম মোর্শেদ: সব ভেদাভেদ ভুলে দেশের...

বিস্তারিত
‘বিশ্বনেতাদের মাঝেও উজ্জ্বল ছিলেন বঙ্গবন্ধু’

বিউটি সমাদ্দার: সব ভেদাভেদ ভুলে দেশের...

বিস্তারিত
কিংকর্তব্যবিমূঢ় হয়ে পড়ে পাকিস্তানি সেনারা

কাজী বাপ্পা: জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *