‌'নজরুল ইসলামকে অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি করে আদেশ জারি হয়'

প্রকাশিত: ১১:৫৮, ১০ এপ্রিল ২০২১

আপডেট: ১২:৪৫, ১০ এপ্রিল ২০২১

কাজী বাপ্পা: জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর বছর ছিল ২০২০। তাঁর শততম জন্মবার্ষিকীর দিন, ১৭ই মার্চ থেকে শুরু হয়েছে মুজিববর্ষ উদযাপন, যা চলছে এই স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীর বছরও। স্বাধীন বাংলাদেশ ও বঙ্গবন্ধু একাত্মা। তিনিই একাত্তরের ২৬শে মার্চ স্বাধীনতা ঘোষণা করেন। তাঁর ডাকেই মানুষ স্বাধীনতার জন্য সশস্ত্র যুদ্ধে ঝাপিয়ে পড়েছিল। শেখ মুজিবুর রহমানের বিরল ঐতিহাসিক নেতৃত্বের সেই উত্তাল আন্দোলন ও সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধের দিনগুলো নিয়ে মুজিববর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীর বছরজুড়ে বৈশাখী সংবাদের বিশেষ ধারাবাহিক আয়োজন- যাঁর ডাকে বাংলাদেশ। আজ ৩৮০ তম প্রতিবেদন।

একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধ যত এগুতে থাকে বাঙালি নিধনে মত্ত পাকিস্তানের সামরিক সরকার ততই নতুন সামরিক আদেশ জারি করতে থাকে। ১৯৭১ সালের ১০ই এপ্রিল এক সামরিক আদেশ জারি করেন পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট ইয়াহিয়া খান। আদেশে বলা হয়, ২১শে এপ্রিলের মধ্যে সকল সরকারী কর্মকর্তা-কর্র্মচারিদের কাজে যোগদান করতে হবে, অন্যথায় ১২০ নম্বর সামরিক আদেশ অনুযায়ী শাস্তিদান ছাড়াও চাকুরি থেকে বরখাস্ত করা হবে। 

একাত্তরের এদিন, শেখ মুজিবুর রহমানকে রাষ্ট্রপ্রধান করে স্বাধীন বাংলাদেশের সরকার গঠিত হয় এবং এই খবর ভারতের বেতার চ্যানেল আকাশবাণী শিলিগুড়ি কেন্দ্র থেকে প্রচার করা হয়। শীঘ্রই স্বাধীন বাংলার মন্ত্রিসভা গঠনের ঘোষণাও দেওয়া হয় এদিন। বিপ্লবী বাংলাদেশ সরকার আওয়ামী লীগ নেতা সৈয়দ নজরুল ইসলামকে অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি করে আইনের ধারাবাহিক আদেশ জারি করার ঘোষণা দেয়, বেতারের মাধ্যমে বিশ্ববাসীকে জানানো হয়।

সঙ্গীতজ্ঞ গৌরীপ্রসন্ন মজুমদারের কথা এবং অংশুমান রায়ের কন্ঠে ১০ই এপ্রিল “একটি মুজিবরের থেকে লক্ষ মুজিবরের কণ্ঠ” গানটি প্রথমবার ভারতের বেতার আকাশবানী কলকাতার সংবাদ পরিক্রমায় প্রচার করা হয়। 

একাত্তরের এদিন, পাকিস্তান সেনাবাহিনী দিনাজপুরের আরও উত্তরে ঠাকুরগাঁও পুরোপুরি দখল করে নেয়।

১৯৭১ সালের ১০ই এপ্রিল ব্রিটেনে অবস্থানরত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বিচারপতি আবু সাঈদ চৌধুরী সাক্ষাত করেন ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী স্যার অ্যালেক ডগলাস হিউমের সঙ্গে। বিচারপতি চৌধুরী বাংলাদেশে পাকিস্তান সামরিক বাহিনীর পরিচালিত গণহত্যার কথা ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে জানান। সাংবাদিক সায়মন ড্রিংয়ের প্রতিবেদন সম্পর্কে অবহিত করে স্বাধীন বাংলাদেশের সরকারকে সহযোগীতা করার জন্য বিচারপতি চৌধুরী ব্রিটিশ মন্ত্রীর প্রতি আহ্বান জানান।

এই বিভাগের আরো খবর

বাংলাদেশ গণতান্ত্রিক দেশ হবে: বঙ্গবন্ধু

কাজী বাপ্পা: জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ...

বিস্তারিত
‌'পাকিস্তানীদের রোষানলে পড়েছিলেন বঙ্গবন্ধু'

গোলাম মোর্শেদ: সব ভেদাভেদ ভুলে দেশের...

বিস্তারিত
পাকিস্তানকে সহযোগিতা বন্ধের দাবি ওঠে

কাজী বাপ্পা: জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ...

বিস্তারিত
আখাউড়া চেকপোস্ট দখল করে নেয় পাকবাহিনী

কাজী বাপ্পা: জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ...

বিস্তারিত
‘পাকিস্তানের মূল প্রতিপক্ষ ছিলেন বঙ্গবন্ধু’

গোলাম মোর্শেদ: সব ভেদাভেদ ভুলে দেশের...

বিস্তারিত
আমেরিকার সহায়তা চেয়ে বার্তা পাঠান ইয়াহিয়া খান

কাজী বাপ্পা: জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ...

বিস্তারিত
‘বঙ্গবন্ধুর ভাষণের তাৎক্ষণিক প্রভাব পড়েছিলো’

বিউটি সমাদ্দার: সব ভেদাভেদ ভুলে দেশের...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *