হত্যার হুমকিদাতাদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবি সাংবাদিকদের

প্রকাশিত: ০৮:১৯, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১

আপডেট: ১০:৫২, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১

নিজস্ব প্রতিবেদক: দুর্নীতির সংবাদ প্রচার করায় বৈশাখী টেলিভিশনের প্রধান বার্তা সম্পাদক সাইফুল ইসলাম প্রতিবেদক কাজী ফরিদকে হত্যার হুমকি দেয়ার প্রতিবাদে সমাবেশ করেছে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি (ডিআরইউ)। আজ (সোমবার) দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি প্রাঙ্গণে আয়োজিত প্রতিবাদ সভায় বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের কর্মী সাংবাদিক সংগঠনগুলোর নেতারা অংশ নেন। হুমকিদাতাদের দ্রুত আইনের আওতায় আনার দাবি জানান সাংবাদিক নেতারা।

গত ১১ থেকে ১৫ই জানুয়ারি পর্যন্ত জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনিয়ম, দুর্নীতি নিয়ে প্রতিবেদন প্রচার করে বৈশাখী টেলিভিশন। এরপরই বৈশাখী টেলিভিশনের প্রধান বার্তা সম্পাদক সাইফুল ইসলাম প্রতিবেদক কাজী ফরিদকে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে চিঠি কাফনের কাপড়ের এক টুকরা পাঠানো হয়। সাংবাদিকদের প্রাণনাশের হুমকি দেয়ার ঘটনায় সোমবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি প্রতিবাদ সভার আয়োজন করে।

সভায় জাতীয় প্রেসক্লাব, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন ক্রাইম রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের নেতারা বক্তব্য রাখেন।

হুমকি দেয়ার এক সপ্তাহ অতিবাহিত হওয়ার পরও হুমকিদাতা চিহ্নিত না হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন সাংবাদিক নেতারা।

এসময় তারা বলেন, মনস্তাত্বিক চাপ প্রয়োগ করে সংবাদকর্মীদের দমিয়ে রাখা যাবেনা। এসময় দোষীদের দ্রুত আইনের আওতায় আনার দাবি জানানো হয়, অন্যথায় কঠোর আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দেন তারা।

ডিআরইউর সভাপতি মুরসালিন নোমানীর সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জাতীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস খান, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব আবদুল মজিদ, ডিআরইউর সাবেক সভাপতি শাহজাহান সরদার, এম শফিকুল করিম সাবু, সাখাওয়াত হোসেন বাদশা, ইলিয়াস হোসেন রফিকুল ইসলাম আজাদ, ডিআরইউর সহ-সভাপতি ওসমান গনি বাবুল, সাধারণ সম্পাদক মসিউর রহমান খান, সাবেক সাধারণ সম্পাদক রাজু আহমেদ সৈয়দ শুকুর আলী শুভ।

সভাপতির বক্তৃতায় ডিআরইউ সভাপতি মুরসালিন নোমানী বলেন, দেশে যখনই কোনো অন্যায় হয় বা কাউকে হুমকি দেওয়া হয়, তখন এর তদন্ত হয়। যারা এসব অপকর্মের সঙ্গে জড়িত তাদের শাস্তি হয়। কিন্তু ব্যতিক্রম কেবল সাংবাদিকরাই। তাদেরকে হুমকি, নাজেহাল করা হলেও কোনো বিচার হয় না। 

তিনি বলেন, ডিআরইউর সাবেক সভাপতি সাইফুল ইসলাম একজন সজ্জ্বন ব্যক্তি। তিনি একটি গুরুত্বপূর্ণ পদে আসীন রয়েছেন। তার মত একজন সিনিয়র সাংবাদিককে প্রাণনাশের হুমকি দেওয়া হলো, অথচ এখন পর্যন্ত জড়িতদের কাউকেই শনাক্ত করা হয়নি। আমরা ঘটনায় তীব্র নিন্দা প্রতিবাদ জানাই। একইসঙ্গে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর উদ্দেশ্যে আমরা বলতে চাই, যদি অবিলম্বে হুমকি দাতাদের শনাক্ত করে গ্রেফতার করা না হয়, তাহলে সাংবাদিক সমাজ বৃহত্তর কর্মসূচি দিতে বাধ্য হবে।

ডিআরইউর সাধারণ সম্পাদক মসিউর রহমান খান বলেন, দেশের সাংবাদিক সমাজ চরম ক্রান্তিকাল পার করছে। আজ নিজেদের স্বার্থ রক্ষায় গণমাধ্যমকর্মীদের রাস্তায় নামতে হচ্ছে। অবস্থা থেকে আমাদের বেরিয়ে আসতে হবে।

এই বিভাগের আরো খবর

ওমিক্রন রোধে কারিগরি কমিটির ৪ সুপারিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক: করোনা ভাইরাসের...

বিস্তারিত
দেশের সব প্রবেশ পথে সতর্কবার্তা

নিজস্ব প্রতিবেদক: করোনাভাইরাসের...

বিস্তারিত
হাতিরঝিলের পানি দূষিত, বাতাসে দুর্গন্ধ

শেখ হারুন: রাজধানীর অন্যতম বিনোদন...

বিস্তারিত
পিছিয়ে গেল আবরার হত্যা মামলার রায়

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাংলাদেশ প্রকৌশল...

বিস্তারিত
সাবেক মেয়র হানিফের মৃত্যুবার্ষিকী আজ

অনলাইন ডেস্ক: আজ ২৮শে নভেম্বর। ঢাকা...

বিস্তারিত
শোক ও শ্রদ্ধায় ডা. মিলন দিবস পালিত

নিজস্ব প্রতিবেদক: নানা কর্মসূচির...

বিস্তারিত
আবরার হত্যা মামলার রায় কাল 

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাংলাদেশ প্রকৌশল...

বিস্তারিত
মুগদায় আগুনে দগ্ধ আরও একজনের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীর মুগদায়...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *