শীতে সরিষার তেল ব্যবহারের উপকারিতা

প্রকাশিত: ০৫:৫৭, ০৩ জানুয়ারি ২০২১

আপডেট: ০৫:৫৭, ০৩ জানুয়ারি ২০২১

অনলাইন ডেস্ক: সরিষার তেলের রান্না খাবার যেমন সুস্বাদু, তেমনি এর শারীরিক উপকারিতাও অনেক। শরীর এবং ত্বকের উপকারে নানাভাবে কাজে লাগে এই তেলটি। রোজের ডায়েটে এই তেলটিকে অন্তর্ভুক্ত করেলে মেলে নানা উপকার।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে: সরিষার তেলে বেশ কিছু পুষ্টিকর উপাদান রয়েছে। যা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার উন্নতি ঘটানোর মধ্যে দিয়ে আমাদের একাধিক রোগ থেকে দূরে রাখতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে।

শ্বাস কষ্ট দূর হয়: একাধিক গবেষণায় প্রামাণিত হয়েছে যে শ্বাসকষ্ট সম্পর্কিত যে কোনো ধরনের সমস্যা কমাতে সরিষার তেলের কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে। তাই যারা এমন রোগে ভুগছেন, তাদের নিয়মিত সরিষার তেল খাওয়া উচিত।

হার্টের কর্মক্ষমতা বাড়ায়: সরিষার তেল খাওয়া শুরু করলে হার্টের কোনও ক্ষতি তো হয়ই না, বরং কোনও ধরনের হার্টের রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা একেবারে তলানিতে এসে ঠেকে। প্রসঙ্গত, ২০০৪ সালে আমেরিকান জার্নাল অব ক্লিনিকাল নিউট্রিশানে প্রকাশিত একটি গবেষণা পত্র অনুসারে সরিষার তেলে উপস্থিত মনোস্যাচুরেটেড এবং পলিস্যাচুরেটেড ফ্যাট শরীরে উপস্থিত খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে শুরু করে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই হার্টের কোনও ধরনের ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা একেবারে কমে যায়।

ক্যান্সার রোগের প্রকোপ কমায়: সরিষার তেলে উপস্থিত গ্লকোসুনোলেট এবং মিরোসিনেস নামে দুটি উপাদান শরীরে ক্যান্সার সেলের বৃদ্ধি আটকাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। তাই প্রতিদিন এই তেল খেলে এমন ধরনের মারণ রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা অনেকাংশেই কমে যায়।

আর্থ্রাইটিস রোগের কষ্ট কমায়: সেলেনিয়াম এবং ম্যাগনেসিয়াম, এই দুটি খনিজ সরিষার তেলে খুব বেশি পরিমাণ থাকে, যা আথ্রাইটিসের প্রদাহ কমানোর পাশপাশি এই রোগের প্রকোপ হ্রাসেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। তাই যারা এমন হাড়ের রোগে ভুগছেন, তাদের প্রতিদিন সরিষার তেলে রান্না করা খাবার খাওয়া উচিত।

মাইগ্রেন: সরিষার তেলে প্রচুর পরিমাণে ম্যাগনেসিয়াম রয়েছে। এই খনিজটি মাইগ্রেনের কষ্ট কমাতে দারুন কাজে আসে। তাই এমন তেলে রান্না করা খাবার খেলে মাইগ্রেনের কষ্ট একেবারে কমে যায়। পপ্রঙ্গত, সরিষার তেলে ভাজা মাছ খেলে শরীরে ওমাগা-থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিডের পরিমাণ বৃদ্ধি পায়। ফলে অনেক ধরনের রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা হ্রাস পায়।

ডায়াটারি ফাইবার: হজম ক্ষমতার উন্নতি ঘটানোর পাশাপাশি নানাবিধ পেটের রোগ থেকে দূরে রাখতে বিশেষ ভূমিকা নেয় সরিষার তেল। আসলে এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ফাইবার, যা পেটের স্বাস্থ্য ভাল রাখতে দারুন কাজে আসে।

সংক্রমণে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা কমে: সরিষার তেলে উপস্থিত অ্যান্টি-ফাঙ্গাল এজেন্ট দেহের অন্দরে জীবাণুদের প্রবেশ করতে বাধা দেয়। আর যদি কোনও ক্ষতিকর এজেন্ট প্রবেশ করেও যায়, তবে তাকে মেরে ফেলে এই অ্যান্টি-ফাঙ্গাল। ফলে কোনও ধরনের সংক্রমণে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা হ্রাস পায়। প্রসঙ্গত, কোলন এবং ইন্টেস্টাইনে যাতে কোনও ভাবে ইনফেকশান না হয়, সরিষার তেল সেদিকেও খেয়াল রাখে।

ব্লাড প্রেসার নিয়ন্ত্রণে রাখে: সরিষার তেলে রয়েছে কপার, আয়রণ, ম্যাগনেসিয়াম এবং সেলেনিয়াম। এই খনিজগুলি রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে।

সরিষা তেলের অন্য উপকারিতা: পেশীর যে কোনও ধরনের যন্ত্রণা কমানোর পাশাপাশি ঠান্ডা লাগা, পিঠে ব্যথা, এমনকি জ্বরের প্রকোপ কমাতেও সরিষার তেলের কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে।

এই বিভাগের আরো খবর

আনারসের যত পুষ্টিগুণ

অনলাইন ডেস্ক: আনারস হচ্ছে...

বিস্তারিত
বাড়তি মেদ কমাবে ধনে-জিরা-মেথি

অনলাইন ডেস্ক: পেটে বাড়তি মেদ শুধু...

বিস্তারিত
ফাগুনের হাওয়ায় ত্বকের যত্ন

অনলাইন ডেস্ক: ফাগুন হাওয়া মানেই...

বিস্তারিত
যেসব অভ্যাসে মেরুদণ্ডের ক্ষতি হয়

অনলাইন ডেস্ক: শিরদাঁড়া বা মেরুদণ্ড...

বিস্তারিত
ত্বকের মৃতকোষ দূর করার উপায়

অনলাইন ডেস্ক: মানুষের ত্বক প্রতি ৩০...

বিস্তারিত
আজ বিশ্ব ভালোবাসা দিবস

নিজস্ব প্রতিবেদক: আজ ১৪ই ফেব্রুয়ারি...

বিস্তারিত
দাঁতের হলদেভাব দূর হবে যেভাবে!

অনলাইন ডেস্ক: দাঁত হলুদ হওয়ার কারণে...

বিস্তারিত
তারুণ্য ধরে রাখতে গাজরের রস

অনলাইন ডেস্ক: গাজর অত্যন্ত জনপ্রিয়...

বিস্তারিত
অ্যালার্জি প্রতিরোধে জলপাই

অনলাইন ডেস্ক: শীতকালের জনপ্রিয় ফল...

বিস্তারিত
ফুসফুস ভালো রাখে ৬টি খাবার

অনলাইন ডেস্ক: জীব দেহের অতি...

বিস্তারিত
ঘুমানোর আগে যেসব খাবার নয়

অনলাইন ডেস্ক: সারা দিনের ক্লান্তি...

বিস্তারিত
মুখের দাগ দূর করে কলার খোসা

অনলাইন ডেস্ক: কলা খাওয়ার পর...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *