লুকাশেঙ্কোকে বেলারুশের প্রেসিডেন্ট স্বীকৃতি দেয়নি ইইউ

প্রকাশিত: ০৮:১১, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০

আপডেট: ০৮:১১, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ছয় সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে চলছে বেলারুশের প্রেসিডেন্টের পদত্যাগের দাবিতে গণবিক্ষোভ। এর মধ্যেই শপথ নিয়েছেন প্রেসিডেন্ট অ্যালেক্সান্ডার লুকাশেঙ্কো। এদিকে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইউ) বলেছে, লুকাশেঙ্কো বেলারুশের বৈধ প্রেসিডেন্ট নন। আকস্মিকভাবে তার শপথ গ্রহণ সরাসরি জনগণের ইচ্ছার বিরুদ্ধে গেছে।

বুধবার চলমান বিক্ষোভ উপেক্ষা করেই টানা ষষ্ঠবারের মতো আবারও প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেন প্রেসিডেন্ট আলেক্সান্ডার লুকাশেঙ্কো। সংবাদ মাধ্যম সিএনএন জানিয়েছে, আগস্টে বেলারুশে বিতর্কিত নির্বাচনের পর লুকাশেঙ্কোর এই পদক্ষেপ তাকে বয়কট করতে ইইউ’র পরিকল্পনাকে আরও ত্বরান্বিত করেছে। নভেম্বরে বর্তমান প্রেসিডেন্টে লুকাশেঙ্কোর মেয়াদ শেষ হওয়ার পর থেকে তাকে আর স্বীকৃতি না দেওয়ার বিষয়ে আগেই সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইউরোপীয় পার্লামেন্ট।

আজ (বৃহস্পতিবার) ইইউ ২৭টি দেশ এক বিবৃতিতে বলেছে, লুকাশেঙ্কোর তথাকথিত এই অভিষেক এবং তিনি যে নতুন ম্যান্ডেট দাবি করেছেন তার কোনও গণতান্ত্রিক বৈধতা নেই। তার এই নতুন যাত্রা সরাসরি বেলারুশের বৃহত্তর জনগণের ইচ্ছার বিরুদ্ধে গেছে। আগস্টে নির্বাচনের পর থেকেই দেশটিতে একের পর এক চলে আসা নজিরবিহীন শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভের মধ্য দিয়ে যার বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে। তার এই পদক্ষেপ বেলারুশের রাজনৈতিক সংকটকেই আরও গভীর করেছে।

তার আকস্মিক এই শপথ অবৈধ বলে নিন্দা জানিয়ে আবারও বিক্ষোভ কর্মসূচির ডাক দিয়েছে বিরোধীদল। বিক্ষোভ দমনে লুকাশেঙ্কো সরকার গ্রেফতার দমন-পীড়ন চালালেও বিক্ষোভ চালিয়ে যাচ্ছে দেশটির মানুষ।

গত আগস্ট দেশটিতে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রায় ৮০ শতাংশ ভোট পেয়ে জয়ী হন দীর্ঘ ২৬ বছর ধরে ক্ষমতায় থাকা লুকাশেঙ্কো। কিন্তু ওই ভোটের স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে বিক্ষোভ শুরু করে বিরোধী দলসহ সাধারণ মানুষ।

এই বিভাগের আরো খবর

আফগানিস্তানে পদদলিত হয়ে ১৫ জনের মৃত্যু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: আফগানিস্তানে...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *