ভিডিও বার্তায় যা বললেন তামিম

প্রকাশিত: ২৭-০৯-২০২৩ ১১:৫২

আপডেট: ২৭-০৯-২০২৩ ২০:২৭

ক্রীড়া ডেস্ক: বিশ্বকাপ ক্রিকেটে না খেলতে এবং দলে না থাকতে বিভিন্নভাবে বাধা দেয়া হয়েছে বলে জানালেন তামিম ইকবাল। তিনি বললেন, বিসিবির ফিজিও’র রিপোর্টে কোথাও তাকে খেলার অনুপযুক্ত বলা হয়নি। পাঁচ ম্যাচ খেলবেন, এমন কথাও কাউকে বলেননি বলে জানালেন তামিম। বাংলাদেশ দল বিশ্বকাপ খেলতে যাওয়ার পর নিজের ফেসবুক পেইজে এক ভিডিও বার্তায় তামিম ইকবাল এসব বলেন। ভিডিও বার্তায় তিনি অভিযোগ করেন, দলে না রাখার জন্য তার সাথে ইচ্ছাকৃতভাবে অনেক ঘটনাই ঘটানো হয়েছে। 

২০০৭ থেকে ২০১৯ পর্যন্ত চারটি বিশ্বকাপ ক্রিকেটে খেলেছেন তামিম ইকবাল। চার বিশ্বকাপে মোট ২৯টি ম্যাচ খেলেছেন অভিজ্ঞ এই ক্রিকেটার। কয়েক মাস আগে ঠিক ছিলো এবারের বিশ্বকাপেও তামিম ইকবালের অধিনায়কত্বে খেলবে বাংলাদেশ। কিন্তু, গত জুলাই মাসে আফগানিস্তানের বিপক্ষে হোম সিরিজ চলাকালে অনেকটা আকস্মিকভাবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা দেন তামিম। পরে সেই সিদ্ধান্ত পরিবর্তনও করেন।

কিন্তু শেষ পর্যন্ত ভারতে অনুষ্ঠিতব্য বিশ্বকাপ দলে তামিম ইকবালকে রাখা হয়নি। বাংলাদেশ দল ভারতের উদ্দেশে ঢাকা ছাড়ার পর এক ভিডিও বার্তায় তামিম জানিয়েছেন, সম্প্রতি কী কী ঘটেছে তার সাথে। ১২ মিনিট ১০ সেকেন্ডের ভিডিও বার্তায় তিনি জানান, নানা চাপ দিয়ে ইচ্ছাকৃতভাবে তাকে বিশ্বকাপ দলে না থাকতে বাধ্য করা হয়েছে। 

তামিম জানান, বিসিবির নির্বাচক প্যানেল কিংবা কোন পরিচালককে তিনি মাত্র ৫ ম্যাচ খেলবেন, এমন কথা বলেননি। ফিজিও’র রিপোর্টে কী লেখা ছিলো সেটাও পরিষ্কার করলেন তামিম। 

ক্ষোভ অভিমান সত্ত্বেও বিশ্বকাপে যাওয়া বাংলাদেশ দলকে শুভকামনা জানাতে ভুলেননি তামিম। 

বিশ্বকাপ দলে না থাকলেও, তাকে মনে রাখতে ক্রিকেট অনুরাগীদের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন তামিম ইকবাল। 

SMS/sat