এক নারীকে গাছের সাথে বেঁধে নির্যাতন

প্রকাশিত: ০৩-০২-২০২৩ ১০:১৪

আপডেট: ০৩-০২-২০২৩ ১২:১৮

শরীয়তপুর সংবাদদাতা: সুদের  টাকা না দেওয়ায় শরীয়তপুরের ডামুড্যায় গাছের সাথে শিকল দিয়ে  বেঁধে এক নারীকে নির্যাতনের ঘটনায় স্থানীয়দের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। মেয়ের বিয়ের জন্য ৫৩ হাজার টাকা নিয়ে তার সুদ সময় মত পরিশোধ করতে না পারায় এঘটনা ঘটে। এ ব্যাপারে খোঁজ নিয়ে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী র্কমর্কতা।

শরীয়তপুর উপজেলার তালতলা এলাকার  দেলোয়ার মাদবরের কাছ  থেকে ৩ বছর আগে চড়া সুদে   ৫৩ হাজার টাকা ঋণ নেন দীকশুল এলাকার চান্দু বকাউলের স্ত্রী নীলুফা। মেয়ের বিয়েতে অনেক ঋণ হয়ে যাওয়ায়  নীলুফা তা সময় মত শোধ পারেন নি। তাই গত (শুক্রবার)  দেলোয়ার মাদবর ও তার স্ত্রী বাড়ি  থেকে  ডেকে নিয়ে তাদের ঘরের সামনে  পেয়ারা গাছের সাথে  বেঁধে রাখে। 

প্রত্যক্ষদর্শীরা জনান, প্রায় দুই ঘন্টা ধরে নিলুফা বেগমকে আটকে রাখা হয়। কেউ নিলুফার পক্ষে কথা বলতে  গেলে তাকেও তারা বেঁধে রাখতে চায়। স্থানীয়দের মিমাংসায় নিলুফাকে  ছেড়ে  দেওয়া হয়। বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর স্থানীয়দের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

সুদের ব্যবসাকে কেন্দ্র করে এলাকায় মাঝে মধ্যেই এমন সমস্যার সৃষ্টি হয় বলে জানান এই জনপ্রতিনিধি। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানালেন, সুদের টাকার জন্য কাউকে বেঁধে রাখা অন্যায়। খোঁজ নিয়ে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সুদকে কেন্দ্র করে এমন অমানবিক ঘটনার পুনরাবৃত্তি যেন না হয় সেই পদক্ষেপ নেয়ার অনুরোধও জানালেন স্থানীয়রা।

Laiza/sharif