নৌকার পরাজয়ের পেছনে অভ্যন্তরীণ কোন্দল!

প্রকাশিত: ০২:৩৭, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১

আপডেট: ০৩:২৮, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১

নিজস্ব সংবাদদাতা: ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের তৃতীয় ধাপ পর্যন্ত বিজয়ী চেয়ারম্যানদের ৫৮ শতাংশ আওয়ামী লীগের হলেও বিজয়ী স্বতন্ত্র প্রার্থীর সংখ্যাও উলে­খ করার মতো, প্রায় ৩৯ শতাংশ। এই স্বতন্ত্র প্রার্থীদের বেশিরভাগই আওয়ামী লীগের। দলের তৃণমূলের নেতাকর্মীরা বলছেন, নৌকার প্রার্থীদের পরাজয়ের অন্যতম কারণ যোগ্য প্রার্থীকে মনোনয়ন না দেয়া ও দলের অভ্যন্তরীন কোন্দল। আর কেন্দ্রীয় নেতারা জানালেন, বিদ্রোহী প্রার্থী ও তাদের মদদদাতাদের জন্য কঠোর সিদ্ধান্ত অপেক্ষা করছে। 

দেশের সাড়ে ৪ হাজার ইউনিয়ন পরিষদের মধ্যে এপর্যন্ত তিনটি ধাপে ২২শ ইউনিয়ন পরিষদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এরমধ্যে ২১শ ৮৯টি ইউনিয়ন পরিষদের প্রাপ্ত ফলাফল বিশ্লেষণ করে দেখা যায় আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা বিজয়ী হয়েছেন ১২শ ৭৯ ইউনিয়ন পরিষদে। স্বতন্ত্র প্রার্থীরা বিজয়ী হয়েছেন ৮শ ৬৩ ইউনিয়ন পরিষদে আর অন্যান্য দল ৪৭টিতে। 

প্রথম ধাপে ৩শ ৬৪ ইউনিয়ন পরিষদের ভোটে আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা বিজয়ী হয়েছে ২শ ৬৯টি ইউনিয়নে। স্বতন্ত্র প্রার্থীরা ৮৭টিতে। 

২য় ধাপে ৮শ ৩৩টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে নৌকা জয়ী হয়েছে ৪শ ৮৫ টি ইউনিয়ন পরিষদে আর স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে বিজয়ী হয়েছে ৩শ ৩০ জন। 

সর্বশেষ তৃতীয় ধাপের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের ৫শ ২৫ জন ও স্বতন্ত্র ৪শ ৪৬ জন প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন। 

প্রথম ধাপের নির্বাচনে প্রায় ৭৪ শতাংশ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বিজয়ী হলেও তৃতীয় ধাপে কমে দাঁড়িয়েছে ৫৩ শতাংশে। আর স্বতন্ত্র প্রার্থীরা প্রথম ধাপে ২৪ শতাংশ ইউনিয়নে বিজয়ী হলেও প্রত্যেক ধাপেই বাড়ছে তাদের বিজয়ের হার।

এই তিন ধাপে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন ২শ ৫১ জন। বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচন হয়ে যাওয়া ইউপি ব্যাতিত অন্যান্য ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের ২য় ধাপে আওয়ামী লীগ ৫৩ শতাংশ আর স্বতন্ত্র ৪৩ ইউপিতে শতাংশ জয়ী হয়েছে। আর ৩য় ধাপের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা ৪৭ শতাংশ ও স্বতন্ত্র প্রার্থীরা প্রায় ৫০ শতাংশ ইউপিতে নির্বাচিত হয়। 

আওয়ামী লীগের প্রার্থীদের পরাজিত করে বিপুল পরিমাণে স্বতন্ত্র প্রার্থী বিজয়ী হওয়ার জন্য দলের সঠিক প্রার্থী মনোনয়ন করতে না পারা ও স্থানীয় পর্যায়ের কোন্দলকে দুষছেন তৃণমূলের নেতৃবৃন্দ।

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা বলছেন, দলীয় প্রতীকের বিরোধীতাকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে অভিযুক্তরা যত শক্তিশালীই হোক না কেন।

আগামীতে দলীয় প্রতীকে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন করার যৌক্তিকতা নিয়েও ভাবার সময় এসেছে বলে মনে করেন আওয়ামী লীগের এই নেতা।

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *

loading...
loading...