অর্থ পাচারের অভিযোগে আপন জুয়েলার্সের বিরুদ্ধে পাঁচ মামলা আপডেট: ১০:৫২, ১২ আগস্ট ২০১৭

নিজস্ব প্রতিবেদক: অর্থ পাচারের অভিযোগে আপন জুয়েলার্সের বিরুদ্ধে রাজধানীর চার থানায় পাঁচটি মামলা করেছে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর। মামলার অভিযুক্তরা হলেন আপন জুয়েলার্সের তিন মালিক দিলদার আহমেদ সেলিম, গুলজার আহমেদ ও আজাদ আহমেদ।

শুল্ক গোয়েন্দা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মইনুল খান জানান, আজ শনিবার গুলশান থানায় দুইটি এবং ধানমন্ডি, রমনা ও উত্তরা থানায় একটি করে মামলা করা হয়। আপন জুয়েলার্স কর ফাঁকি দিয়ে দীর্ঘ দিন ধরে অবৈধ পথে স্বর্ণ ও ডায়মন্ড এনে ব্যবসা করে আসছিল। এ ঘটনায় শুল্ক গোয়েন্দা বিভাগের পাঁচ জন সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা বাদী হয়ে মামলাগুলো দায়ের করে।

এর আগে অবৈধ স্বর্ণ মজুতের অভিযোগ, গত মে মাসে আপন জুয়েলার্সের পাঁচটি শোরুমে অভিযান চলিয়ে প্রায় ১৫ মণ স্বর্ণ ও ডায়মন্ডের অলংকার জব্দ করে শুল্ক গোয়েন্দা অধিদপ্তর।

এদিকে, আজ শনিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর বায়তুল মোকাররম মার্কেট থেকে ১৬ কেজি স্বর্ণসহ রবিউল ইসলাম নামের এক ব্যক্তিকে আটক করেছে শুল্ক গোয়েন্দা বিভাগ। আটকের বাড়ি কক্সবাজারের পুর্ব বোয়ালখালি গ্রামে।

 

Publisher : .