ঢাকা, বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

2018-11-21

, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪০

শুল্ক ফাঁকি দিয়ে গাড়ি আমদানি হচ্ছে দেশে

প্রকাশিত: ০৭:১১ , ১১ মার্চ ২০১৭ আপডেট: ০৭:১১ , ১১ মার্চ ২০১৭

নানান প্রক্রিয়ায় শুল্ক ফাঁকি দিয়ে দেশে গাড়ি আমদানি হচ্ছে। তবে, শুল্ক গোয়েন্দা বিভাগের নজর এড়িয়েই এধরণের ঘটনা বেশি ঘটছে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে একথা জানা গেছে। 

গত বছরের মে মাসে রাজধানীর বনানী এলাকা থেকে একটি বিলাসবহুল গাড়ি জব্দ করে শুল্ক গোয়েন্দা বিভাগ। গাড়িটি ছিল ৪ হাজার সিসির ‘ওডি আর ৮’ মডেলের রেসিং কার। কিন্তু সকল তথ্য গোপন করে বিপুল পরিমান শুল্ক ফাঁকি দিয়ে গাড়িটি আনা হয়। গাড়ি ব্যবসার ভেতরের কেউ কেউ নিজের পরিচয় গোপন রাখার শর্তে জানান, এই ধরণের ঘটনা ঘটে অনেক কিন্তু ধরা পড়ে কম।

সূত্র জানায়, গাড়ির সক্ষমতা ও ক্রয়মূল্য অনুযায়ী বিভিন্ন পর্যায়ের আমদানি শুল্ক আরোপ করা হয়। তাতে দশ বারো লাখ টাকা থেকে শুরু করে গাড়ির দাম ১০-১২ কোটিতে গিয়ে ঠেকে। শুল্কের পরিমান নির্ধারণে রয়েছে বিভিন্ন ধাপ, যার উপর নির্ধারিত হয় গাড়ির চূড়ান্ত বিক্রয় মূল্য। 

এসবের বাইরেও রয়েছে আরেক ধরণের শুল্ক ফাঁকির গল্প। দেশের ভেতরের অনেক প্রতিষ্ঠান বা সংস্থা শুল্কমুক্ত গাড়ি আনার সুবিধা পায়। সেই সুযোগের আড়ালে রয়েছে অবৈধ ব্যবসা চালাবার অভিযোগ।

রাজস্ব বিভাগ সূত্র জানায়, ২৫টি কূটনৈতিক ও উন্নয়ন-সহযোগী প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের এমন শুল্কমুক্ত ৩৯৫টি গাড়ির খোঁজ পেয়েছে রাজস্ব বিভাগ, যেগুলো একটা মেয়াদে ব্যবহারের পর নিয়ম বর্হিভূত ভাবে বিক্রি করে দেয়।

মটরসাইকেলের আমদানি বাণিজ্যে শুল্ক ফাঁকি ও নানান অনিয়মের গল্প আরো বি¯তৃত। স্থল সীমান্ত এলাকাগুলোতে সংগঠিতভাবে এই অবৈধ বাণিজ্য চলে।

ব্যবসায়ীরা বলেছেন, বছরে এ ধরণের মটরসাইকেল প্রবেশ করে দশ হাজারের মত।
 

এই বিভাগের আরো খবর

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is