ঢাকা, রবিবার, ২৬ মে ২০১৯, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

2019-05-25

, ২০ রমজান ১৪৪০

জলাবদ্ধতায় স্থবির বন্দরনগরী চট্টগ্রামের জনজীবন

প্রকাশিত: ১০:৩৩ , ২৫ জুলাই ২০১৭ আপডেট: ১০:৩৩ , ২৫ জুলাই ২০১৭

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি: টানা চারদিনের বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতায় স্থবির হয়ে পড়েছে বন্দরনগরী চট্টগ্রামের জনজীবন। বৃষ্টির পানি আর জোয়ারের পানিতে ডুবে আছে দেশের বৃহত্তম পাইকারী বাজার চাকতাই-খাতুনগঞ্জ। কাঁচামাল নষ্ট হয়ে যাওয়ায় বিশাল আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছে ব্যবসায়ীরা।

এদিকে, বর্ষা মৌসুম শেষ হলেই সমন্বিতভাবে জলাবদ্ধতা নিরসনে কাজ শুরু করার আশ^াস দিলেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন।   

বৃষ্টি আর জোয়ারের পানিতে চট্টগ্রামের আগ্রাবাদ এক্সেস রোড, সিডিএ, কমার্স কলেজ, বারিক বিল্ডিং মোড়, চকবাজার, হালিশহর, ইপিজেড মোড়, ষোলশহর ২নম্বর গেট,  প্রবর্তক মোড়সহ বিভিন্ন এলাকা ডুবে আছে হাঁটু থেকে কোমর পানিতে।

জমে থাকা পানির কারণে বিভিন্ন সড়কে ছোটো-বড় খানাখন্দ আরও বাড়ছে। ঘটছে দুর্ঘটনা।

বৃষ্টির কারণে কোন কোন এলাকায় লম্বা সময় ধরে লোড শেডিংও হচ্ছে।

সারাদেশের মোট ভোগ্যপণ্যের ৪০ থেকে ৫০ শতাংশ  বিক্রি হয় পাইকারী বাজার চাক্তাই, খাতুনগঞ্জ ও আছাদগঞ্জে। বৃষ্টি আর জোয়ারের পানিতে ডুবে আছে পুরো বাজার। নষ্ট হচ্ছে আড়ৎ ও দোকানে থাকা চাল, পিয়াজ, রসুনসহ নানা ভোগ্যপণ্য।

ব্যবসায়ীরা বললেন, এতে করে বিশাল অংকের আর্থিক ক্ষতিতে পড়েছেন তারা।


চাক্তাই-খাতুনগঞ্জ আড়তদার সাধারণ ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সভাপতি সোলায়মান বাদশা জানালেন, বাজরে পানি ঢোকার জন্য চাকতাই খালের মুখে স্লুইচ গেট থাকা প্রয়োজন বলে মনে করেন তিনি।

ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতি ভোগ্যপণ্যের বড় এই পাইকারী বাজারকে রক্ষায় স্লুইচ গেট নির্মাণসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

চট্টগ্রামের সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন জানিয়েছেন, বন্দরনগরীর জলাবদ্ধতা নিরসনে বর্ষা মৌসুম শেষ হলেই শুরু হবে খাল খনন ও ¯ু­ইচ গেট নির্মাণের কাজ।

এদিকে, প্রবল বৃষ্টিতে কাপ্তাই লেকে পানির উচ্চতা বিপজ্জনকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। পানি কমাতে খুলে দেয়া হয়েছে বাঁধের গেট।

এই বিভাগের আরো খবর

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is