এটি সব দল নির্বাচনে না যাওয়ার রোডম্যাপ : ফখরুল আপডেট: ০৮:৫৩, ১৭ জুলাই ২০১৭

নিজস্ব প্রতিবেদক: সব দল নির্বাচনে যাতে অংশ নিতে না পারে, তার রোডম্যাপ নির্বাচন কমিশন দিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। সোমবার সকালে রাজধানীর মওলানা ভাসানী মিলনায়তনে জাতীয়তাবাদী মহিলা দল আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা করেন।

উল্লেখ্য, আগামী সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে রোববার সাত দফা কর্মপরিকল্পনা প্রকাশ করেছে নির্বাচন কমিশন। এতে সংসদীয় এলাকার সীমানা পুনঃনির্ধারণ, আইনি কাঠামো পর্যালোচনা, নতুন রাজনৈতিক দলের নিবন্ধন ও সংশ্লিষ্টদের সাথে সংলাপের মতো  বিষয়গুলো রয়েছে। নির্বাচন কমিশনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে লিখিত কর্মপরিকল্পনা প্রকাশ করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে. এম. নুরুল হুদা। তিনি বলেন, সবার জন্য সমান সুযোগ সৃষ্টি এবং সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠানই তাদের প্রধান এজেন্ডা।

মহিলা দলের সভায় মির্জা ফখরুল আগে নির্বাচনের পরিবেশ তৈরি করতে সরকারের প্রতি আহবান জানান। তিনি বলেন, সরকার চায় না দেশে সুষ্ঠু নির্বাচন হোক। বিএনপি তাতে অংশগ্রহণ করুক। সুষ্ঠু নির্বাচন হলে, জনগণ আওয়ামী লীগকে প্রত্যাখ্যান করবে এই ভয়ে ক্ষমতাসীনরা আবারও পাঁচ জানুয়ারির মতো একতরফা নির্বাচন করার প্রস্তুতি নিচ্ছে। সব দলের অংশগ্রহণে সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য সরকারকে চাপ দিতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানান বিএনপি’র মহাসচিব।

ফখরুল বলেন, ‘‘ইলেকশন করবে কে? রাজনৈতিক দলগুলো তো? রাজনৈতিক দলগুলোকে যে আপনি নির্বাচনে নিয়ে যাবেন তার রাস্তা কোথায়? হোয়্যার ইজ দ্য রোড? ম্যাপ দিয়ে দিচ্ছেন, এই করতে হবে, রাস্তাই নাই। রাস্তা তো আপনারা খানাখন্দ খুঁড়ে টুঁড়ে শেষ করে দিয়েছেন। নির্বাচনে যেন বিরোধী দল যেতে না পারে তার জন্য আপনারা ব্যবস্থা করছেন। আমাদের খুব পরিষ্কার কথা। আমরা নির্বাচন কমিশনকে বলতে চাই, আগে নির্বাচনের পরিবেশ তৈরি করেন, রাস্তা তৈরি করেন। তাহলে রোডম্যাপ দেওয়াটা সার্থক হবে, অন্যথায় হবে না।’’

মির্জা ফখরুল আরও বলেন, দেশের মানুষ পরিবর্তন চায়, ভোটের অধিকার ফিরে পেতে চায় এবং সেই অধিকার ফিরিয়ে আনার লড়াইয়ে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

তিনি বলেন, ‘‘ওরাই (আওয়ামী লীগ) সবকিছু করবে। মিটিং করবে, ইলেকশন করবে, বিনা ভোটে নির্বাচন করবে, ক্ষমতায় যাবে, মন্ত্রী হবে, এমপি হবে, হাজার হাজার কোটি টাকা লুট করবে। আর আমরা আপনার ওই সাধারণ মানুষ, আমরা শুধু হাততালি বাজাবো। আহা বেশ বেশ আহা বেশ। এটা হবে না। আমরা এই দেশে সবার অধিকার প্রতিষ্ঠিত করতে চাই। সব গণতান্ত্রিক অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে চাই এবং আমাদের সেই ব্যবস্থা তৈরি করতে হবে।’’

 

Publisher : Abdul Majid