রংপুরে ধর্ষণের অভিযোগে পুলিশের বিরুদ্ধে মামলা

প্রকাশিত: ০১:৪০, ২৬ অক্টোবর ২০২০

আপডেট: ০২:০৪, ২৬ অক্টোবর ২০২০

রংপুর সংবাদদাতা: রংপুরে প্রেমের ফাঁদে ফেলে এক স্কুল ছাত্রীকে বাসা থেকে ডেকে এনে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) এএসআই রায়হানুল ইসলামের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় দুইজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতদের আসামি করে মামলা করা হয়েছে। এক নারীকে আটক করেছে পুলিশ। অভিযুক্ত রায়হানুলকেও পুলিশের জিম্মায় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

রোববার (২৫ অক্টোবর) মহানগরীর হারাগাছ থানাধীন ক্যাদারের পুল এলাকার একটি ভাড়া বাসায় এ ঘটনা ঘটে। গতকাল রাতে বিষয়টি জানাজানি হলে আলেয়া নামে এক নারীকে আটক করে পুলিশ। ভুক্তভোগী কিশোরীকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেছে।

ভুক্তভোগীর পরিবার সূত্রে জানা গেছে, রংপুর মহানগর পুলিশের হারাগাছ থানাধীন ময়নাকুঠি কচুটারি এলাকার নবমশ্রেণির এক ছাত্রীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন রংপুর মহানগর ডিবি পুলিশের এএসআই রায়হানুল ইসলাম। মেয়েটির সঙ্গে পরিচয়ের সময় রায়হানুল তার ডাক নাম রাজু বলে জানান।

সম্পর্কের সূত্র ধরে রোববার সকালে ওই ছাত্রীকে ক্যাদারের পুল এলাকার শহিদুল্লাহ মিয়ার ভাড়াটিয়া আলেয়া বেগমের বাড়িতে ডেকে নেন রায়হানুল। সেখানে রায়হানুল ধর্ষণের পর তার আরও কয়েকজন পরিচিত যুবক ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করেন।

এ ঘটনার পর ওই ছাত্রী অসুস্থ হয়ে পড়লে কৌশলে পুলিশকে বিষয়টি জানায়। পরে রাত সাড়ে ৮টার দিকে হারাগাছ থানা পুলিশ নির্যাতিতা ছাত্রীকে ওই বাড়ি থেকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে তার পরিবারকে খবর দেয়। সেসময় আটক করা হয় ওই সময় বাড়ির ভাড়াটিয়া আলেয়া বেগমকে।

পরে ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে পুলিশ সদস্য রায়হানুলসহ দুইজনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো কয়েকজকে আসামি করে ধর্ষণ মামলা করেন।

পরে নির্যাতিতা ছাত্রীকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে।

ওই পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে ওই বাড়িতে বিভিন্ন সময়ে মেয়ে নিয়ে গিয়ে অসামাজিক কার্যকলাপের অভিযোগও আছে।

এদিকে এ ঘটনায় রংপুর মহানগর পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার (অপরাধ) আবু মারুফ হোসেন জানিয়েছেন, প্রাথমিক জ্ঞিাসাবাদে তাকে দুইজন ধর্ষণ করেছে বলে জানা গেছে। এরমধ্যে রাজু নামের একজন পুলিশ সদস্যের কথা জানিয়েছে মেয়েটি। ওই রাজু ডিবি পুলিশের এএসআই রায়হানুল কিনা তা নিশ্চিত হতে রায়হানুলকেও পুলিশের জিম্মায় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

এছাড়া এ ঘটনায় এক নারীকে আটক করা হয়েছে। মামলার তদন্ত কার্যক্রম এখনও প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছে।

এই বিভাগের আরো খবর

শিশু ধর্ষণের দায়ে একজনের যাবজ্জীবন

কক্সবাজার সংবাদদাতা: কক্সবাজারে...

বিস্তারিত
এবি ব্যাংকের ২৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক: অফশোর ব্যাংকিংয়ের...

বিস্তারিত
৪টি ক্লিনিককে ৫ লাখ টাকা জরিমানা

গোপালগঞ্জ সংবাদদাতাঃ গোপালগঞ্জে...

বিস্তারিত
শিশু সন্তানকে হত্যা, বাবা আটক

দিনাজপুর সংবাদদাতা: দিনাজপুরের...

বিস্তারিত
মাস্ক না পরায় লক্ষ্মীপুরে ৩১ জনকে অর্থদণ্ড

লক্ষ্মীপুর সংবাদদাতা: মাস্ক না পরায়...

বিস্তারিত
খাগড়াছড়িতে পৃথক মামলায় ৩ জনের যাবজ্জীবন

খাগড়াছড়ি সংবাদদাতা: খাগড়াছড়িতে পৃথক...

বিস্তারিত
জুয়েল হত্যায় আরো ২ জন রিমান্ডে

লালমনিরহাট সংবাদদাতাঃ লালমনিরহাটের...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *