অশান্তি ও করোনামুক্ত বিশ্বের প্রত্যাশা প্রধানমন্ত্রীর

প্রকাশিত: ১২:৫৯, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০

আপডেট: ১২:৩৩, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, পারস্পরিক সহযোগিতা ছাড়া কোন দেশের একার পক্ষে এগিয়ে যাওয়া সম্ভব নয়। তাই সবার সাথে বন্ধুত্বের নীতি বজায় রেখে দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে সরকার। আজ শুক্রবার (২৫ সেপ্টেম্বর) সকালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জাতিসংঘে দেওয়া ভাষণের ৪৬ বছর পূর্তি উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে এসব বলেন প্রধানমন্ত্রী। 

বিশ্বে শান্তি প্রতিষ্ঠার পাশাপাশি ঐক্যবদ্ধভাবে করোনামুক্ত পৃথিবী গড়ার আহবানও জানান শেখ হাসিনা। এ সময় তিনি বলেন, দেশে যাতে খাদ্য সংকট দেখা না দেয়, সেজন্য খাদ্য উৎপাদন, মজুদ ও সরবরাহের প্রতি যথাসাধ্য কাজ করছে সরকার। আওয়ামী লীগ দীর্ঘ সময় ক্ষমতায় থাকায় দেশের জনগণ এর সুফল পাচ্ছে বলেও মন্তব্য করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

একাত্তরে দেশ স্বাধীন হওয়ার পর ১৯৭৪ সালে জাতিসংঘের সদস্যপদ পায় বাংলাদেশ। সে বছরের ২৫শে সেপ্টেম্বর জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে প্রথমবার বাংলায় ভাষণ দেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। 

বঙ্গবন্ধুর দেওয়া সেই ভাষণের ৪৬ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে রাজধানীর ফরেন সার্ভিস একাডেমিতে শুক্রবার আলোচনা সভার আয়োজন করে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে সভায় যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শুরুতেই ফরেন সার্ভিস একাডেমির নবনির্মিত প্রশিক্ষণ ভবনের উদ্বোধন এবং বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে প্রকাশিত দু’টি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেন প্রধানমন্ত্রী। 

আলোচনায় বাংলাদেশের পররাষ্ট্রনীতির কথা উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, সব দেশের সাথে সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক রেখে দেশকে এগিয়ে নিতে কাজ করছে তার সরকার। 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, একটি গোষ্ঠী বরাবরই দেশের উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত করার অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু সরকারের ওপর জনগণের আস্থা ও বিশ্বাস থাকায় সব চক্রান্ত প্রতিহত করা গেছে। 

শেখ হাসিনা বলেন, শান্তিপূর্ণ বিশ্ব সবারই কাম্য। করোনার মতো অতিমারি মোকাবেলায় সবাইকে ঐক্যবদ্ধ পদক্ষেপ নেয়ার তাগিদ দেন তিনি। 

প্রাকৃতিক সম্পদের ঘাটতি থাকায় দেশের জনশক্তিকেই মূল সম্পদ হিসেবে আখ্যায়িত করেন প্রধানমন্ত্রী। অর্থনৈতিক কূটনীতিতে আরো জোর দিতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতি নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এছাড়া অনুষ্ঠানে ফরেন সার্ভিস একাডেমির নতুন ভবনের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী। আলোচনায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জাতিসংঘে দেওয়া ভাষণের গুরুত্ব তুলে ধরেন বক্তারা। এ সময় তারা বলেন, জাতিসংঘে বাংলাদেশ তার নিজস্ব পরিচয়ে অভিষিক্ত হয়েছিল বঙ্গবন্ধুর ভাষণে। 

এই বিভাগের আরো খবর

সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নিলেন মনিরুল ও আনোয়ার

নিজস্ব প্রতিবেদক: একাদশ জাতীয় সংসদের...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *