শিক্ষক নিয়োগের নামে এক কর্মকর্তার প্রতারণার ফাঁদ

প্রকাশিত: ১০:১১, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০

আপডেট: ১২:০৭, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০

আশিক মাহমুদ: প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগের নামে শতাধিক মানুষের কাছ থেকে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের এক কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। ভুক্তভোগীরা জানান, প্রতিজনের কাছ থেকে দুই লাখ থেকে দশ লাখ টাকা করে নিয়েছেন অধিদপ্তরের সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা মোশারফ হোসেন। অভিযুক্ত ওই কর্মকর্তা টাকা নেয়ার কথা স্বীকারও করেছেন।

বোনের চাকরির জন্য প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরে সহকারি কর্মকর্তা মোশারফ হোসেনকে টাকা দিয়ে এখন তার পেছনে ঘুরছেন ঢাকার চাঁন মিয়া।

প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগ দেয়ার নামে চাঁন মিয়ার মতো আরো অনেকের কাছ থেকে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন এই সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা। কারো কাছ থেকে তিন লাখ, কারো কাছ থেকে ৫ লাখ, কারো কাছ থেকে নিয়েছেন ১০ লাখ টাকা।

এসব অভিযোগের অনুসন্ধান করতে গিয়ে বৈশাখী টেলিভিশনের কাছে আসে ভুক্তভোগীরা। তারা মোশারফের দেয়া কিছু চেক ও একাউন্টে জমা হওয়া টাকার রশিদ, মামলার কপি দেয়।

মিরপুর থানায় এক ভূক্তভোগী প্রতারণার মামলা করলেও তার কোন অগ্রগতি নেই।খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, চাকরি দয়োর নামে মানুষের কাছ থেকে টাকা নিয়ে নিজে গড়েছেন গাড়ি-বাড়ি-সম্পদ। কুমিল্লায় নিজ গ্রামে তৈরি করেছেন বিলাসবহুল বাগানবাড়ি, মিরপুরের জনতা হাউজিং এর হেনা গার্ডেনে আছে ফ্লাট। মিরপুরের লাভ রোডে লাভ বার্ড নামে একটি রেস্টুরেন্টও চালান তিনি। এসব অভিযোগ অকপটে স্বীকারও করেছেন মোশারফ।

এই বিভাগের আরো খবর

উদ্যোক্তা গড়ে তুলতে চায় সরকার

ফারহানা জুঁথী: দেশের কর্মক্ষম...

বিস্তারিত
পেঁয়াজ আমদানিতে ভারত নির্ভরতা কমাতে চায় সরকার

শাহনাজ ইয়াসমিন: পেঁয়াজ আমদানিতে ভারত...

বিস্তারিত
নারী ও শিশুদের সুরক্ষায় গঠিত কমিটি নিষ্ক্রিয়

শাহনাজ ইয়াসমিন: নারী ও শিশুদের প্রতি...

বিস্তারিত
অবাধে বিক্রি হচ্ছে যৌন উত্তেজক ওষুধ

আশিক মাহমুদ: বড় বড় ফ্যার্মেসি থেকে...

বিস্তারিত
নভেম্বরেও খুলবে না শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান

শাহনাজ ইয়াসমিন: করোনার দ্বিতীয়...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *