করোনা সংকটে অনিশ্চয়তায় দেশের নতুন উদ্যোক্তারা

প্রকাশিত: ০২:০৯, ১৩ জুলাই ২০২০

আপডেট: ০৮:৪৯, ১৩ জুলাই ২০২০

ইউসুফ রানা: করোনা সংকটে অনিশ্চয়তায় পড়েছেন দেশের নতুন উদ্যোক্তারা। আয় না থাকলেও খরচের চাপ সামাল দিতে না পেরে স্বপ্নের প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দিচ্ছেন নবীণ ব্যবসায়ীরা। এতে উদ্যোক্তা হবার শুরুতেই হতাশায় ডুবছেন তারা। এই উদ্যোক্তাদের সুরক্ষা দেয়া না গেলে আগামীতে বেকার জনগোষ্ঠীর চাপ বাড়ার আশঙ্কা করছেন আর্থিক খাতের বিশেষজ্ঞরা।

ব্যাংকের ভালো বেতনের চাকরি ছেড়ে বছরখানিক আগে বিউটি পার্লারের ব্যবসাটা শুরু করেছিলেন তরুণ উদ্যোক্তা ফাতেমা বিনতে শামসউদ্দিন। পরে এরসাথে গড়ে তোলেন বুটিকস এবং মেয়েদের হোস্টেলও। বিনিয়োগ করেছিলেন প্রায় ১৫ লাখ টাকা।  কিন্তু বছর না পেরুতেই মহামারী করোনার থাবা। গেলো মার্র্চে সাধারণ ছুটিতে বন্ধ হয়ে যায় তিনটি প্রতিষ্ঠানই। দুই মাসের ছুটির পর আর খুলতে পারেননি তার স্বপ্নের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান।

প্রায় একই রকমের গল্প আরেক তরুণ উদ্যোক্তা সুজন মাহমুদেরও। এলিফ্যান্ট রোডের আবুল কালাম আজাদের গল্পটা আরো করুণ।

ফাতেমা, সুজন ও আজাদদের মতো কতজন নবীণ উদ্যোক্তা আছেন, তার সঠিক পরিসংখ্যান নেই কোন সংস্থার কাছেই। তবে শুধু ঢাকাতেই ২৫ হজার নতুন ব্যবসায়ী যুক্ত হওয়ার তথ্য দিয়েছেন ঢাকা মহানগর দোকান মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আরিফুর রহমান টিপু।

সিপিডি-র রিসার্চ ফেলো তৌফিকুল ইসলাম খান জানান, করোনায় আর্থিক ক্ষতির ঝুঁকিতে পড়া নবীণ উদ্যোক্তাদের সুরক্ষা দিতে না পারলে, আগামীতে কর্মসংস্থানের জন্য সরকারকে বড় চ্যালেঞ্জে পড়তে হবে বলে মনে করেন আর্থিক খাতের বিশ্লেষকরা।

পুরনোদের পাশাপাশি নবীন উদ্যোক্তাদেরও আর্থিক সহযোগিতা করতে ব্যাংকগুলোর প্রতি আহবান জানান তিনি।


 

এই বিভাগের আরো খবর

বন্যায় বাঁধ ভেঙ্গেছে ২২০ কিলোমিটার

ফাহিম মোনায়েম: অতি বৃষ্টি ও উজানের...

বিস্তারিত
শুভ জন্মাষ্টমী আজ

নিজস্ব প্রতিবেদক: হিন্দু...

বিস্তারিত
করোনায় বদলাচ্ছে ভোক্তার আচরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক: করোনা পরিস্থিতিতে...

বিস্তারিত
গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু ৩৯, শনাক্ত ২৯০৭

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশে করোনাভাইরাসে...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *