ডা: সাবরিনা তিন দিনের রিমান্ডে

প্রকাশিত: ০৭:০৭, ১২ জুলাই ২০২০

আপডেট: ০৬:৪৭, ১২ জুলাই ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক : করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষা নিয়ে জেকেজি হেলথকেয়ারের বিরুদ্ধে করা প্রতারণার মামলায় গ্রেফতার প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান ডাক্তার সাবরিনাকে তিনদিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছে আদালত। সকালে, ঢাকা মূখ্য মহানগর হাকিম আদালতের বিচারক শাহিনুর রহমান এই আদেশ দেন। এর আগে সকালে তেজগাঁও থানা থেকে আদালতে নেয়া হয় সাবরিনাকে। পরে তার ৪ দিনের রিমান্ড আবেদন করে পুলিশ।

রোববার তাকে গ্রেপ্তার করে তেজগাঁও থানা পুলিশ। করোনা ভাইরাসের নমুনা পরীক্ষা না করেই মনগড়া রিপোর্ট দেয়ার অভিযোগে প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে ৪টি মামলা রয়েছে। একই মামলায় এর আগে গ্রেপ্তার দেখানো হয় প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী কর্মকতা ও ডাক্তার সাবরিনার স্বামী আরিফুল হক চৌধুরীসহ আরো ছয়জনকে। এদিকে, সাবরিনা আরিফ চৌধুরীর ব্যাংক হিসাব জব্দ করেছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সেল। এছাড়া জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউটের রেজিস্টার্ড চিকিৎসকের পদ থেকে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষা নিয়ে জেকেজি হেলথকেয়ারের প্রতারণার মামলায় রোববার দুপুরে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এর আগে, চিকিৎসক সাবরিনা আরিফ চৌধুরীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হাসপাতাল থেকে ঢাকা মহানগর পুলিশের তেজগাঁও বিভাগের কার্যালয়ে ডেকে নেওয়া হয়। জেকেজি হেলথ কেয়ারের টেস্ট জালিয়াতির সাথে তার জড়িত থাকার প্রাথমিক প্রমাণ পাওয়ার পর তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

করোনা নমুনা পরীক্ষায় প্রতারণা, থানায় হামলাসহ নানা অভিযোগে তেজগাঁও থানায় ৪টি মামলা রয়েছে। এসব মামলায় প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী আরিফ চৌধুরীসহ ৫ জন আগেই গ্রেফতার হয়েছেন।

তেজগাঁও উপ-পুলিশ কমিশনার হারুন অর রশীদ বলেন, জেকেজি’র চেয়ারম্যান হিসেবে ডা. সাবরিনা কোন ভাবেই দায় এড়াতে পারে না।

গত ২৩ জুন করোনার ভুয়া সনদ দেওয়া, জালিয়াতি ও প্রতারণার অভিযোগে আরিফুলসহ ছয়জনকে গ্রেফতার করে তেজগাঁও থানা পুলিশ। গ্রেফতারের পর থানা হাজতে থাকাকালীন আরিফুল চৌধুরীর সিসি ক্যামেরাও ভাঙচুরসহ বেপরোয়া আচারণ করে।

এছাড়া রাজধানীর মহাখালীর তিতুমীর কলেজে নমুনা সংগ্রহের বুথ বসিয়ে সেখানে প্রশিক্ষণের নামে নানা অনৈতিক কর্মকান্ডের অভিযোগও পাওয়া যায় জেকেজি হেলথ কেয়ারের বিরুদ্ধে।

আরিফ চৌধুরী এবং ডা. সাবরিনা দম্পতি মিলেই করোনা টেস্টের ভুয়া সনদ বিক্রি করেছেন। টেস্টের জন্য জনপ্রতি নিয়েছেন সর্বনিম্ন পাঁচ হাজার টাকা। আর বিদেশি নাগরিকদের কাছ থেকে নিয়েছেন জনপ্রতি ১০০ ডলার।
 

এই বিভাগের আরো খবর

কয়েদি নিখোঁজের ঘটনায় তদন্ত শুরু

গাজীপুর সংবাদদাতা: কাশিমপুর...

বিস্তারিত
জন্মবার্ষিকীতে বঙ্গমাতার প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি

অনলাইন ডেস্ক: বঙ্গবন্ধুর সহধর্মিণী...

বিস্তারিত
লালমনিরহাট-বুড়িমারী সড়কে বাড়ছে দুর্ঘটনা 

লালমনিরহাট: লালমনিরহাট-বুড়িমারী...

বিস্তারিত
চুয়াডাঙ্গায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৬

চুয়াডাঙ্গার সংবাদদাতা: চুয়াডাঙ্গার...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *