ফারজানা ব্রিটেনের বর্ষসেরা চিকিৎসক

প্রকাশিত: ০৮:৪২, ০৬ জুলাই ২০২০

আপডেট: ১০:৫৬, ০৬ জুলাই ২০২০

আফিয়া জ্যোতি:  লন্ডন শহরের কেন্দ্রবিন্দু ও অন্যতম ব্যস্ততম এলাকা পিকাডেলী সার্কাসে একটি বিলবোর্ডে শোভা পাচ্ছে এক নারীর ছবি। তিনি বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ চিকিৎসক ফারজানা হোসাইন। এ বছর যুক্তরাজ্যের বর্ষসেরা চিকিৎসক নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। ইতোমধ্যেই বিষয়টি আলোচনার শীর্ষে। এতে সম্মান বেড়েছে বাংলাদেশের। উচ্ছসিত ড. ফারজানা হোসেইনও।
করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোর মধ্যে একটি হচ্ছে যুক্তরাজ্য। দেশটিতে করোনার এই মহামারীর সময়ে সামনের সারিতে থেকে স্বাস্থ্যসেবা দিয়ে বর্ষসেরা চিকিৎসক নির্বাচিত হয়েছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ চিকিৎসক। দেশটির ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিস- এনএইচএস এই ঘোষণা দিয়েছে। এজন্য তাকে সম্মান জানাতে বিলবোর্ডে টানানো হয়েছে তার ছবি। দেশটিতে প্রতিবছর জেনারেল প্র্যাকটিসের জন্য এই পুরস্কার ঘোষণা করা হয়।

বিলবোর্ডে ব্যবহৃত ছবিটি বেশ ভাইরাল হয়ে ওঠেছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। একজন বাংলাদেশি বংশোদ্ভুত চিকিৎসকের এই সম্মান ও প্রাপ্তি পুরো কমিউনিটির জন্য গৌরবের বলছেন বিশিষ্টজনেরা।

ডা. ফারজানা হোসেইন এবং তার টিম করোনা মহামারীকালীন সময়ে ব্রিটেনের রোগীদের চিকিৎসার বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। তিনি ১৮ বছর ধরে পূর্ব লন্ডনে চিকিৎসা পেশায় নিয়োজিত। যুক্তরাজ্যের ন্যাশনাল এ্যাসোসিয়েশন অব প্রাইমারি কেয়ারের নির্বাহী পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। 

ডা. ফারজানা গত ৩ বছরে নিউহ্যামের স্থানীয় চিকিৎসা কমিটিতে ছিলেন। সেইসঙ্গে নিউহ্যামের জেনারেল প্র্যাকটিস ফেডারেশনের বোর্ড ডিরেক্টরের দায়িত্বও পালন করে আসছেন। এছাড়াও তিনি যুক্তরাজ্যের এনএপিসির কাউন্সিল সদস্য।

ফারজানার বাবা-মা দু’জনই ছিলেন বাংলাদেশি। বাবা ১৯৭০ সালে স্কলারশিপ নিয়ে পড়তে গিয়েছিলেন যুক্তরাজ্যে, পরে সেখানেই স্থায়ী হন তিনি। বাবা ছিলেন অ্যানেস্থেসিয়া স্পেশালিস্ট। তাই  ছোটবেলা থেকেই বাবার সঙ্গে হাসপাতালে যেতেন ফারজানা। তার মায়ের ইচ্ছা ছিলো মেয়ে ডাক্তার হবে। ডাক্তারি পেশাটার প্রতি ফারজানার অন্যরকম ভালোবাসা জন্ম নিয়েছিল মায়ের কারণেই। পড়াশুনা করেছেন ইউনিভার্সিটি অব ওয়েলসের স্কুল অব মেডিসিনে। বর্তমানে দুই কন্যা সন্তানের জননী ডা. ফারজানা। অর্থনৈতিকভাবে সুবিধাবঞ্চিত জনগোষ্ঠীর স্বাস্থ্য সুবিধা নিশ্চিত করাই তার লক্ষ্য বলে জানান ডা. ফারজানা হোসেইন।

পূর্ব লন্ডনের চিকিৎসা কেন্দ্রে নিয়মিত রোগীদের সেবা দিয়ে যাচ্ছেন ড. ফারজানা হোসেইন। তার এই প্রাপ্তি ব্রিটিশ বাংলাদেশি ও বাংলাদেশের চিকিৎসদের জন্য অনুপ্রেরণা ও উৎসাহ।

এই বিভাগের আরো খবর

নতুন হয়রানিতে সৌদি প্রবাসীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক: ভিসার মেয়াদ বাড়াতে...

বিস্তারিত
ছুটির দিনেও সৌদির টিকিট বিক্রির দীর্ঘলাইন

নিজস্ব প্রতিবেদক: আজ (শুক্রবার) ছুটির...

বিস্তারিত
ভিসার মেয়াদ বাড়াতে সৌদি সরকারকে চিঠি

নিজস্ব প্রতিবেদক: করোনা মহামারী...

বিস্তারিত
রাজধানীতে আজও সৌদি প্রবাসীদের বিক্ষোভ

নিজস্ব সংবাদদাতা: ফিরতি টিকিটের...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *