২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ আক্রান্ত ২০২৯, মৃত্যু ১৫

প্রকাশিত: ০২:৪৫, ২৮ মে ২০২০

আপডেট: ১২:৩২, ২৮ মে ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক: প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসে বাংলাদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় (২৮ মে, বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা) সর্বোচ্চ আক্রান্ত হয়েছে ২০২৯ জন। এ নিয়ে দেশে করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৪০ হাজার ৩২১ জনে। একই সময় ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে করোনায় এখন পর্যন্ত মোট মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়ালো ৫৫৯ জনে। এছাড়া আরো ৫০০ জনসহ এখন পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ৮৪২৫ জন।

আজ বৃহস্পতিবার (২৮ মে) দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদফতরের করোনাভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত হেলথ বুলেটিনে এ তথ্য জানানো হয়। অনলাইনে বুলেটিন উপস্থাপন করেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের ভারপ্রাপ্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

করোনাভাইরাস শনাক্তে গত ২৪ ঘণ্টায় নয় হাজার ২৬৭টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরীক্ষা করা হয় আগের কিছু মিলিয়ে নয় হাজার ৩১০টি নমুনা। এ নিয়ে দেশে মোট নমুনা পরীক্ষা করা হলো দুই লাখ ৭৫ হাজার ৭৭৬টি। নতুন নমুনা পরীক্ষায় করোনার উপস্থিতি পাওয়া গেছে আরও দুই হাজার ২৯ জনের দেহে, যা একদিনে সর্বোচ্চ শনাক্তের রেকর্ড। এই প্রথম ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দুই হাজার ছাড়াল। ফলে দেশে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৪০ হাজার ৩২১ জন। আক্রান্তদের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে আরও ১৫ জনের। ফলে মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ৫৫৯ জনে। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন আরও ৫০০ জন। এ নিয়ে সুস্থ হয়ে ওঠা রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল আট হাজার ৪২৫ জনে।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের ভারপ্রাপ্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা বলেন, নতুন করে যারা মারা গেছেন, তাদের ১১ জন পুরুষ, চারজন নারী। সাতজন ঢাকা বিভাগের, আটজন চট্টগ্রাম বিভাগের। এলাকাভেদে ঢাকা শহরের ছয়জন, নারায়ণগঞ্জের একজন, চট্টগ্রাম শহরের দুজন, চট্টগ্রাম জেলার দুজন, কক্সবাজারের দুজন কুমিল্লার দুজন রয়েছেন। বয়সের দিক থেকে ত্রিশোর্ধ্ব দুজন, পঞ্চাশোর্ধ্ব পাঁচজন, ষাটোর্ধ্ব পাঁচজন, সত্তরোর্ধ্ব দু’জন এবং ৯১ থেকে ১০০ বছরের একজন রয়েছেন।

অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার তুলনায় শনাক্তের হার ২১ দশমিক ৭৯ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ২০ দশমিক ৮৯ শতাংশ এবং মৃত্যুহার দশমিক ৩৯ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে নেয়া হয়েছে আরও ২৪৮ জনকে এবং বর্তমানে আইসোলেশনে রয়েছেন চার হাজার ৯৮৪ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশন থেকে ছাড় পেয়েছেন ১৩৮ জন এবং পর্যন্ত ছাড় পেয়েছেন দুই হাজার ৬৩৮ জন।

ডা. নাসিমা সুলতানা বলেন, সারাদেশে আইসোলেশন শয্যা আছে ১৩ হাজার ২৮৪টি। এর মধ্যে রাজধানী ঢাকায় সাত হাজার ২৫০টি এবং ঢাকার বাইরে আছে ছয় হাজার ৩৪টি। সারাদেশে আইসিইউ শয্যা আছে ৩৯৯টি এবং ডায়ালাইসিস ইউনিট আছে ১০৬টি।

ডা. নাসিমা সুলতানা আরও বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় হোম প্রাতিষ্ঠানিক মিলিয়ে কোয়ারেন্টাইনে নেয়া হয়েছে চার হাজার একজনকে। পর্যন্ত কোয়ারেন্টাইনে নেয়া হয়েছে দুই লাখ ৭৫ হাজার ১০৫ জনকে। গত ২৪ ঘণ্টায় কোয়ারেন্টাইন থেকে ছাড় পেয়েছেন দুই হাজার ৪০৪ জন। পর্যন্ত মোট ছাড় পেয়েছেন দুই লাখ ১৬ হাজার ৮১২ জন। বর্তমানে হোম প্রাতিষ্ঠানিক মিলিয়ে কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন ৫৮ হাজার ২৯৩ জন।

এই বিভাগের আরো খবর

মহাখালীর পুকুরপাড়-মন্দিরপাড়া সড়ক কবে ঠিক হবে?

ইউসুফ রানা: প্রায় দেড় বছর আগে টেন্ডার...

বিস্তারিত
রাজধানীর ওয়ারীর ১৭ এলাকায় লকডাউন শুরু

তাসলিমুল আলম: করোনার বিস্তার রোধে...

বিস্তারিত
মশা নিধনে কাল থেকে চিরুনি অভিযান

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীতে মশা...

বিস্তারিত
লাফিয়ে বাড়ছে কাঁচামরিচের দাম

সুমন তানভীর: রাজধানীর বাজারে লাফিয়ে...

বিস্তারিত
কাল থেকে ওয়ারীর ১৭টি সড়ক লকডাউন

নিজস্ব সংবাদদাতা: আগামীকাল (শনিবার)...

বিস্তারিত
কোরবানির পশুর হাট থেকে সংক্রমণ বাড়ার আশঙ্কা 

ফাহিম মোনায়েম: ঈদুল আযহায় কোরবানির...

বিস্তারিত
বিএনপি সংসদকে অবমাননা করেছে: কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক: প্রত্যাখ্যানের...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *