বিশ্বে আবারো বাড়ছে প্রাণহানি ও আক্রান্ত

প্রকাশিত: ১২:২৯, ২২ মে ২০২০

আপডেট: ০৩:২৩, ২২ মে ২০২০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: দেশে দেশে লকডাউন শিথিল করায় আবারো বেড়েছে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব। বিশ্বে একদিনে আক্রান্ত হয়েছে একলাখের বেশি মানুষ। মৃত্যু হয়েছে প্রায় পাঁচ হাজার মানুষের। এনিয়ে প্রাণহানি বেড়ে দাঁড়ালো ৩ লাখ ৩৪ হাজার ৬২১ জনে। ব্রাজিলে দ্রুত বাড়ছে সংক্রমণ ও মৃত্যু। মহামারি নিয়ন্ত্রণে যুক্তরাষ্ট্র এক সপ্তাহ আগে লকডাউন জারি করলে দেশটিতে অন্তত ৩৬ হাজার মানুষ কম মারা যেতো,  এক গবেষণায় এমনটাই  দাবি করেছে কলম্বিয়া ইউনিভার্সিটি।

দেশে দেশে লকডাউন শিথিল করায় আবারো বেড়েছে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব। বিশ্বে একদিনে আক্রান্ত হয়েছে একলাখের বেশি মানুষ। মৃত্যু হয়েছে প্রায় পাঁচ হাজারের বেশি মানুষের। এনিয়ে প্রাণহানি বেড়ে দাঁড়ালো ৩ লাখ ৩৪ হাজার ৬২১ জনে।

করোনা ভাইরাস নিয়ন্ত্রণে যুক্তরাষ্ট্র যখন থেকে লকডাউন শুরু করেছে, তার মাত্র এক সপ্তাহ আগে নিষেধাজ্ঞা জারি করলে দেশটিতে অন্তত ৩৬ হাজার মানুষ কম মারা যেত। কলম্বিয়া ইউনিভার্সিটির গবেষণায় নেতৃত্বদানকারী মহামারি বিশেষজ্ঞ জেফারি শামান বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র যদি মাত্র দুই সপ্তাহ আগে লকডাউন জারি করত, তবে সেখানে অন্তত ৮৪ শতাংশ মানুষ কম মারা যেত এবং ৮২ শতাংশ সংক্রমণ কম ঘটত। এর মধ্যে শুধু নিউইয়র্কেই ১৭ হাজার ৫০০ মানুষের প্রাণরক্ষা হতো।

যুক্তরাষ্ট্রে এ পর্যন্ত ৯৬ হাজারের বেশি মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন। আক্রান্ত হয়েছেন ১৬ লাখ ২১ হাজার। দেশটিতে গত এক সপ্তাহে চাকুরি হারিয়েছেন আরো ২৪ লাখ মানুষ। এনিয়ে বেকারের সংখ্যা প্রায় চারকোটি। করোনা মহামারীতের নিহতদের স্মরণে আগামী তিনদিন জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখার আহবান জানিয়েছে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

করোনায় দ্বিতীয় সর্বোচ্চ আক্রান্ত রাশিয়ায়। দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ৩ লাখ ১৭ হাজার। তবে মৃতের সংখ্যা তুলনামূলক কম। মারা গেছেন ৩ হাজার ৯৯ জন। এরপর, তৃতীয় সর্বোচ্চ আক্রান্ত ব্রাজিল। সেখানে ৩ লাখ ১০ হাজার মানুষ করোনায় আক্রান্ত, মারা গেছেন ২০ হাজার মানুষ।

যুক্তরাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা আড়াই লাখ ছাড়িয়েছে। মৃতের সংখ্যার দিক দিয়ে বিশ্বে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে দেশটি। মারা গেছেন ৩৬ হাজার ১২৪ জন। দেশটিতে নতুন পদ্ধতিতে করোনা ভাইরাস পরীক্ষা শুরু হয়েছে, যার ফলাফল পাওয়া যাবে মাত্র ২০ মিনিটেই। এমনটাই জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাট হ্যানকক।

ভাইরাসের প্রকোপে কমতে থাকায় ইতালিতে স্বাভাবিক হতে শুরু করেছে জীবন। অফিস-আদালত, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার পর এবার ভ্রমণের নিষেধাজ্ঞা তুলে নিচ্ছে দেশটি। আগামী ৩ জুন থেকে ইতালিতে অবাধে চলাচলের সুযোগ পাবে দেশটির ৬ কোটি নাগরিক। খুলে দেওয়া হচ্ছে সব বিমানবন্দর। অনুমতি দেওয়া হবে আঞ্চলিক এবং আন্তর্জাতিক ফ্লাইটের।

ভারতে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। দেশটিতে একদিনেই আরও ৬ হাজারের বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে মারা গেছে ১৫০ জন।

চলতি বছর শেষে করোনা ভাইরাসের মহামারিতে দক্ষিণ আফ্রিকায় ৫০ হাজার মানুষের প্রানহানি হবে। একই সময়ে আক্রান্ত হবে ৩০ লাখ মানুষ। এমনটাই দাবি করেছে বিজ্ঞানীরা।

রূপ বদলে চীনে আবারো ফিরেছে করোনা ভাইরাস। আগে দু’সপ্তাহের মধ্যে করোনার লক্ষণ প্রকাশ পেলেও এখন আগের চেয়ে বেশি সময় লাগছে। অথচ আক্রান্ত ব্যক্তির মাধ্যমে সংক্রামিত হচ্ছেন অন্যরা। নতুন করে ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাসের গঠনও ভিন্ন বলে জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। এতে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন চীনা কর্তৃপক্ষ।

করোনা ভাইরাসের প্রকোপ কমায় খুলে দেয়া হচ্ছে অনেক দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। তবে, লকডাউন পরবর্তী শিক্ষাজীবনে মানসিক চাপে পড়বে শিক্ষার্থীরা। এমনটাই জানালেন মনোবিজ্ঞানীরা। শিক্ষার্থীদের মানসিক শক্তি বাড়ানোর জন্য কাউন্সিলিংয়ের পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

 

 

এই বিভাগের আরো খবর

ভেনিজুয়েলায় পৌঁছেছে ইরানের তেল ট্যাংকার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের...

বিস্তারিত
ইতালিতে একদিনে মৃত্যু সর্বনিম্ন

অনলাইন ডেস্ক: চীনে প্রাণঘাতি...

বিস্তারিত
ভারতে ঢুকে পড়েছে পঙ্গপালের ঝাঁক

অনলাইন ডেস্ক: প্রায় তিন কিলোমিটার...

বিস্তারিত
দুইমাসে বিশ্বে সবচেয়ে কম মৃত্যু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: প্রাণঘাতি...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *