ভৈরব ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ১০ হাজার জুতা কারখানা বন্ধ

প্রকাশিত: ১০:২৩, ১৯ মে ২০২০

আপডেট: ০৩:০১, ১৯ মে ২০২০

ডেস্ক প্রতিবেদন: করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে ভৈরব ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিভিন্ন জুতার কারখানায় উৎপাদন বন্ধ রয়েছে। এতে বেকার হয়ে পড়েছে লক্ষাধিক শ্রমিক। আয় না থাকায় মানবেতর জীবন-যাপন করছে তারা। পরিস্থিতি থেকে উত্তরোণে এ শিল্পে জড়িতদের সরকারি পৃষ্ঠপোষকতাসহ প্রণোদণা প্যাকেজের আওতায় আনার দাবি পাদুকা ব্যবসায়ী মালিক ও শ্রমিকদের।

ভৈরবে ছোট-বড় প্রায় ১০ হাজার জুতার কারখানা রয়েছে। এখানের বাহারী ডিজাইনের জুতা দেশের চাহিদা মিটিয়ে রপ্তানি হয় মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে। ঈদের আগে ব্যস্ততা বেড়ে যায় বহুগুণ। কিন্তু এবারের দৃশ্যপট ভিন্ন।

করোনা ভাইরাসের কারনে কারখানা বন্ধ থাকায় বেকার হয়ে পড়েছেন এ পেশা সংশ্লিষ্টরা। মানবেতর জীবনযাপন করছেন লক্ষাধিক শ্রমিক।

লকডাউনের কারণে দিনে ৫ থেকে ৭ কোটি টাকার লোকসান গুণতে হচ্ছে বলে জানালেন এই পেশায় জড়িতরা।

এদিকে, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পাদুকা শিল্প করোনার কারণে বিপর্যস্থ। ২৫ মার্চ থেকে সব কারখানা বন্ধ থাকায় কর্মহীন দেড়শতাধিক কারখানার শ্রমিক-কর্মচারী।  

ব্যবসা না থাকায় কারখানা খরচ ও শ্রমিকদের বেতন দিকে হিমশিম খাচ্ছেন মালিকরা।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও ভৈরবের পাদুকা শিল্পকে বাঁচিয়ে রাখতে পদক্ষেপ নিতে সরকারের প্রতি দাবি জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

 

এই বিভাগের আরো খবর

নাটোরে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে আত্মহত্যা

নাটোর সংবাদদাতা: ফেসবুকে স্ট্যাটাস...

বিস্তারিত
টেকনাফে গোলাগুলিতে মাদক কারবারি নিহত 

কক্সবাজার সংবাদদাতা: কক্সবাজারের...

বিস্তারিত
পানি বেড়ে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি

অনলাইন ডেস্ক : ভারী বৃষ্টি ও উজান থেকে...

বিস্তারিত
ভরা মৌসুমেও মিলছে না ইলিশ

লক্ষ্মীপুর সংবাদদাতা: লক্ষ্মীপুরে...

বিস্তারিত
করোনায় থমকে গেছে কক্সবাজারের পর্যটন খাত

কক্সবাজার সংবাদদাতা: দীর্ঘ লকডাউনে...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *