এক বছর পর ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে হামলার দায় স্বীকার

প্রকাশিত: ১০:০৬, ২৬ মার্চ ২০২০

আপডেট: ১১:০৫, ২৬ মার্চ ২০২০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে  হামলায় ৫১ জন হত্যার দায়  আদালতে স্বীকার করেছেন হামলাকারী ব্রেন্টন টারান্ট। গত বছর জুনে মামলার শুনানি শুরু হলেও এতো সে ঘটনায় হত্যার দায় অস্বীকার করে আসছিল অস্ট্রেলিয়ার এই যুবক।  

২০১৯ সালের ১৫ মার্চ ওই হামলায় ৫১ জন নিহত হন। তার বিরুদ্ধে ৫১ জনকে হত্যা, আরও ৪০ জনকে হত্যাচেষ্টা এবং একটি সন্ত্রাসবাদে অভিযোগ গঠন করা হয়। সবগুলোই তিনি স্বীকার করে নিয়েছেন। এ খবর জানিয়েছে ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি। 

করোনাভাইরাস মহামারির কারণে বর্তমানে লকডাউন অবস্থায় রয়েছে নিউজিল্যান্ড। স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার খুব কম সংখ্যক আদালতের লোকজনের উপস্থিতিতে ক্রাইস্টচার্চের আদালতে ব্রেন্টন তার দোষ স্বীকার করেন। 

আদালতে সাধারণ কোনো মানুষকে প্রবেশ দেয়া হয়নি এবং হামলাকারী ব্রেন্টন ও তার আইনজীবীরা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এ শুনানিতে অংশ নেন।

তবে আদালতে দুই মসজিদে হামলায় ভুক্তভোগীদের পক্ষে প্রতিনিধি হিসেবে একজন উপস্থিত ছিলেন বলে জানিয়েছে বিবিসি ।

বিচারক ম্যান্ডার আদালতে বলে, ‘এটা দুঃখজনক যে, কোভিড-১৯-এর বাধার কারণে ভুক্তভোগী ও তাদের পরিবারের সদস্যরা আদালতে উপস্থিত হতে পারেননি।’

ব্রেন্টনের বিরুদ্ধে হত্যাসহ সব অভিযোগে শাস্তি খুব শিগগিরই শোনানো হবে বলে জানিয়েছে আদালত। আগামী ১ মে পর্যন্ত কারাগারেই থাকতে হবে তাকে।

২০১৯ সালের ১৫ মার্চ  সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে লাইভে নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দুটি মসজিদে হামলা চালান ব্রেন্টন ট্যারান্ট। জুমার নামাজ চলাকালে মুসল্লিদের ওপর অতর্কিত এই হামলা চালান তিনি। এ হামলায় ৫১ জন প্রাণ হারান।

এই বিভাগের আরো খবর

উড়িষ্যায় সংঘর্ষে ৪ মাওবাদী নিহত

অনলাইন ডেস্ক: নিরাপত্তা বাহিনীর...

বিস্তারিত
বিশ্বে করোনায় মৃত ৫ লাখ ৩৬ হাজারের বেশি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৪...

বিস্তারিত
২০৩৬ সাল পর্যন্ত ক্ষমতায় থাকবেন পুতিন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: নিজের ক্ষমতার...

বিস্তারিত
বিশ্বে একদিনে ৪ হাজারের বেশি মৃত্যু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: প্রতি মুহূর্তে...

বিস্তারিত
করোনা থেকে বাঁচতে স্বর্ণের মাস্ক

অনলাইন ডেস্ক: করোনা ভাইরাসের হাত থেকে...

বিস্তারিত
করোনার বাধা পেরিয়ে খুলেছে কফি হাউজ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: প্রায় একশ দিনের...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *