ইয়াহিয়ার সাথে বঙ্গবন্ধুর বৈঠক, ছয় দফা নিয়ে আলোচনা

প্রকাশিত: ০৯:২১, ১৬ মার্চ ২০২০

আপডেট: ১২:১৩, ১৬ মার্চ ২০২০

বিউটি সমাদ্দার: স্বাধীনতার সংগ্রাম, একাত্তরের সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধ ও বাংলাদেশের অভ্যুদয়ের সাথে অবিচ্ছেদ্য নাম বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। নিজের বিরল ত্যাগী ও সৎ রাজনীতি দিয়ে হয়েছিলেন দেশের মানুষের স্বাধীনতা ও মুক্তির প্রতীক। এবছর স্বাধীনতার মাস মার্চ ফিরেছে বিশেষ উপলক্ষ্য নিয়ে। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী এই মাসে। তাই এবার একাত্তরের এই মাসে জাতির জনক শেখ মুজিবের ঐতিহাসিক পদক্ষেপগুলো নিয়ে বৈশাখী সংবাদের ধারাবহিক বিশেষ আয়োজন ‘যাঁর নামে স্বাধীনতা’।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকা অসহযোগ আন্দোলন একাত্তরের ১৬ই মার্চ পঞ্চদশ দিবসে গড়ায়। এদিন প্রেসিডেন্ট ভবন যা বর্তমানে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন সুগন্ধা, সেখানে আনুষ্ঠানিক বৈঠকে বসেন আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ মুজিব এবং পাকিস্তানের সামরিক শাসক ইয়াহিয়া খান। অসহযোগ আন্দোলন কর্মসূচীর অংশ হিসেবে বঙ্গবন্ধু যে সাদা গাড়িতে করে সেখানে গিয়েছিলেন, গাড়ির সামনে একটি কালো পতাকা এবং জানালায় বাংলাদেশের মানচিত্র খচিত পতাকা লাগানো ছিল।

বৈঠকে ছয় দফার মৌলিক দাবিগুলো নীতিগত ভাবে মেনে নিয়ে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে অস্বীকৃতি জানায় ইয়াহিয়া খান। অবিলম্বে সামরিক আইন প্রত্যাহারের দাবিও অগ্রাহ্য করেন। বৈঠক শেষে বের হয়ে বঙ্গবন্ধু সাংবাদিকদেরকে বলেন, “আলোচনা চালিয়ে যাবো।”

১৬ই মার্চ যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক পত্রিকা নিউজ উইকের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ৭ই মার্চ বঙ্গবন্ধু কার্যত স্বাধীনতার ঘোষণাই করেছিলেন। এক পাশ্চাত্য কূটনীতিবিদের বরাত দিয়ে প্রতিবেদক লরেন জেনকিনসে লিখেন, ‘পূর্ব এবং পশ্চিমাঞ্চল বিচ্ছিন্ন হবে এটার কোন সন্দেহ নেই, তবে কতদিনের মধ্যে বিচ্ছিন্ন হতে পারবে তাই বড় প্রশ্ন।”
 

এই বিভাগের আরো খবর

৬ দফাকে চূড়ান্ত লক্ষ্যে পৌঁছান বঙ্গবন্ধু

গোলাম মোর্শেদ: সব ভেদাভেদ ভুলে দেশের...

বিস্তারিত
‘৬-দফাই জাতির মুক্তির সনদ’

কাজী বাপ্পা: জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *