খাদ্যাভাসেই দূরে রাখুন জ্বর, সর্দি, কাশি

প্রকাশিত: ১২:৩১, ১৫ মার্চ ২০২০

আপডেট: ১২:৩১, ১৫ মার্চ ২০২০

অনলাইন ডেস্ক: দিনে গরম আর শেষ রাতে হালকা ঠান্ডা অনুভব করেন নিশ্চয় মৌসুম পরিবর্তনের সময় বিশেষ করে শীত শেষ হয়ে গরমের শুরুর দিকে, দিন রাতের তাপমাত্রার তারতম্যের এই খেলা চলতে থাকে এর জন্যই জ্বর, সর্দি, কাশি গলাব্যথার মতো সমস্যগুলো বেড়ে যায় এই সমস্যায় বেশ কয়েকদিন ভুগতে হয়

এই সমস্যা প্রতিরোধ করতে আপনার খ্যাদ্যাভাসের প্রতি গুরুত্ব দিতে হবে যে খাবারগুলো আপনার শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াবে সেগুলো খেতে হবে একই সাথে থাকতে হবে স্বাস্থ্য সচেতন নিয়মিত হাত ধোঁয়ার মতো অভ্যাস আপনাকে ঠান্ডাজনিত সমস্যাসহ বিভিন্ন রোগ থেকে দূরে রাখতে পারে

দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে ভিটামিন সি সমৃদ্ধ খাবারের জুড়ি নেই ঠান্ডাজনিত সমস্যা ঠেকাতেও ভিটামিন সি বেশ কার্যকরী কমলা, আঙুর, মালটা, লেবুতে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন সি থাকে তাই এগুলো খেতে হবে নিয়মিত পুষ্টিবিদদের মতে, দিনে অন্তত রকম ফল খেতে হবে

প্রাচীনকাল ধরে আয়ুর্বেদিক চিকিৎসায় তুলসী ব্যবহৃত হয়ে আসছে ঠান্ডাজনিত সমস্যা প্রতিরোধে তুলসীর জুড়ি নেই সর্দি-কাশি হলে শিশুকেও তুলসী পাতার রস খাওয়ানো যায় তুলসী পাতার রসের সঙ্গে মধু মিশিয়ে খেলে উপকার পাবেন

খাবারের স্বাদ বাড়াতে রাধুনীরা যে আদার ব্যবহার করে থাকেন এটিও সর্দি-কাশি প্রতিরোধে অত্যন্ত কার্যকরী সকালবেলা ঘুম থেকে উঠেই আদা ফোটানো পানি খেলে উপকার পাবেন এজন্য আধা লিটার পানিতে টেবিলচামচ আদা থেঁতে দিন পানি শুকিয়ে কাপ পরিমাণ হলে চুলা থেকে নামিয়ে উষ্ণ গরম অবস্থায় পান করুন

এছাড়া ঠান্ডাজনিত সমস্যায় মধু যে উপকারি তা বলার অপেক্ষা রাখে না উষ্ণ গরম পানিতে মধু মিশিয়ে সকালবেলা খেতে পারেন তবে শুধু মধু খেলেও কাজ করবে

ভাবতে পারেন দই শুধু হজম প্রক্রিয়ায় সাহায্য করে সর্দি-কাশি প্রতিরোধেও যে দই কার্যকরী তা কী জানতেন? গবেষণায় দেখা গেছে, যারা নিয়মিত টকদই খায়, তাদের সর্দি-কাশি কম হয় দইয়ে থাকা প্রয়োজনীয় কিছু ব্যাকটেরিয়া শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে

এছাড়া ভিটামিন ডি জিংকসমৃদ্ধ খাবার সর্দি-কাশি, জ্বর, গলাব্যথা জ্বর জ্বর ভাব প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে

ঠান্ডাজনিত সমস্যা প্রতিরোধে খাবারের এই খাদ্যাভাস গড়ে তুলার পাশাপাশি আপনাকে হতে হবে স্বাস্থ্য সচেতন সবসময় হাত পরিষ্কার রাখতে হবে অবচেতন মনে আপনার হাত, নাক-মুখ বা চোখে যেতে পারে এতে আপনার স্বাস্থ্য ঝুঁকি বেড়ে যায় অপরিষ্কার হাত মুখে দিলে হাত না ধুয়ে খাবার খেলে দেহে জীবাণুর সংক্রমণ হয় ফলে নানারকম রোগ-বালাই দেখা দেয় এজন্য হাত পরিষ্কার রাখতে হবে সাবান দিয়ে অন্তত ২০ সেকেন্ড ধরে হাত ধুতে হবে তাই কয়েকঘন্টা পরপর সাবান দিয়ে হাত পরিষ্কার করুন

অনেকেই গোসলের পর ভেজা বেঁধে ফেলেন এতে ঠান্ডা লাগার সম্ভাবনা বেড়ে যায় গোসলের পর চুল শুকিয়ে বাইরে বের হতে হবে

তবে কোন রোগই অবহেলার নয় তাই ঠান্ডাজনিত সমস্যা বেড়ে গেলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে

এই বিভাগের আরো খবর

করোনা হলে কোথায় যাবেন

অনলাইন ডেস্ক: বাংলাদেশে প্রথম...

বিস্তারিত
করোনার পরীক্ষা কোথায়, কিভাবে?

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাংলাদেশে...

বিস্তারিত
করোনায় মৃতব্যক্তির দাফন যেকোন স্থানে করা যাবে

অনলাইন ডেস্ক: করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত...

বিস্তারিত
দেশে করোনা সংক্রমণ দীর্ঘমেয়াদী হওয়ার আশংকা

শাহনাজ ইয়াসমিন: প্রতিরোধ ব্যবস্থা বা...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *