এখনও কমেনি চালের দাম

প্রকাশিত: ০২:৩২, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০

আপডেট: ০৩:৩১, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০

তারেক সিকদার: বাড়তি দামে বিক্রি হওয়া চালের দাম এখনও অপরিবর্তিত। দাম বাড়ার জন্য মিল মালিকদের দায়ী করার পাশাপাশি খুচরা বিক্রেতারা মৌসুম শেষ হওয়াকেই কারণ হিসেবে দেখছেন। এদিকে, কমছেই না সবজির দাম। তবে পেয়াঁজ, রসুন ও আদার দাম কিছুটা কমতির দিকে।

চলতি মাসের প্রথম দিকে বাড়তে শুরু করে চালের দাম। এখনো চাল বিক্রি হচ্ছে সেই বাড়তি দামেই। মিনিকেট ও নাজির শাইল চাল বিক্রি হচ্ছে প্রকারভেদে ৬০ টাকা পর্যন্ত। মোটা চাল কেজিপ্রতি ৩৮ ও আটাশ চাল ৪২ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। নতুন চাল বাজারে এলে দাম কমবে বলে জানান ব্যবসায়ীরা।

এদিকে লাফ দিয়ে বেড়ে যাওয়া সবজির দামও চড়া। বরবটি, করলা ও কচুরমুখির কেজি বিক্রি হচ্ছে একশ’ টাকার উপরে। কাঁচামরিচ, চিচিঙ্গা, বেগুন, মটর শুটি ও শিমের দামও ৫০ টাকার ওপরে। এমন দামে ক্ষুদ্ধ ক্রেতারা।

অন্যান্য নিত্যপণ্য অপরিবর্তিত থাকলেও কিছুটা কমেছে পেঁয়াজ, রসুন ও আদার দাম। দেশি পেয়াঁজ ১০ টাকা কমে বিক্রি হচ্ছে ৯০ টাকায়। মিশর থেকে আমদানি করা পেয়াঁজ ১০ টাকা কমে ৭০ ও পাকিস্তানি পেয়াঁজ ৫ টাকা কমে ৯০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে বাজারে। করোনা ভাইরাসের প্রভাবে বেড়ে যাওয়া রসুন ১৮০ টাকা থেকে কমে বিক্রি হচ্ছে ১৬০ টাকায়। ২০ টাকা কমে ১২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে আদা।

তবে বাজারে ইলিশের সমাহার থাকলেও বাড়তির তালিকায় রয়েছে ছোট মাছ। এছাড়া অপরিবর্তিত রয়েছে গরু, মুরগী ও খাসির মাংসের দাম।

এই বিভাগের আরো খবর

শপিংমল বন্ধের সময় বাড়ল ৪ এপ্রিল পর্যন্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক: করোনাভাইরাসের...

বিস্তারিত
দুই দিন নতুন রোগী শনাক্ত হয়নি

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাংলাদেশ গত ২৪...

বিস্তারিত
ভাষানটেকে আগুনে দগ্ধ একই পরিবারের ৩ জন

নিজস্ব সংবাদদাতা: রাজধানীর মিরপুরের...

বিস্তারিত
হোটেল-রেস্টুরেন্ট খোলা থাকবে: ডিএমপি

নিজস্ব প্রতিবেদ: করোনা মোকাবেলায়...

বিস্তারিত
মশার কয়েল থেকে আগুনে মা ও দুই সন্তানের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীর মিরপুরের...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *