বাংলাদেশে কাটছে না করোনাভাইরাসের শঙ্কা

প্রকাশিত: ০৯:৪৭, ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০

আপডেট: ১১:৩৪, ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০

তারেক শিকদার: পৃথিবীব্যাপি আতঙ্ক ছড়ানো করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত কারো সন্ধান বাংলাদেশে এখনো পাওয়া না গেলেও শঙ্কা কাটছে না। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে আশ্বস্ত করা হচ্ছে নিয়মিত। শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ২১ জানুয়ারি থেকে এখন পর্যন্ত চীন থেকে আসা সাড়ে আট হাজার যাত্রীর স্ক্রিনিং করা হয়েছে। ফলাফল স্বস্তিজনক। তবে শঙ্কা দেখা দিয়েছে রংপুর মেডিকেলে ভর্তি হওয়া একজন রোগীকে ঘিরে। চীন ফেরত সেই বাংলাদেশী ছাত্র রয়েছেন রংপুর মেডিকেলের আইসোলেটেড ওয়ার্ডে রয়েছেন।

বিশ্বে সবচেয়ে বড় আতঙ্কের নাম এখন করোনা ভাইরাস। যার কোন ভ্যাকসিন তৈরি হয়নি এখনও। চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহর থেকে ছড়ানো এই ভাইরাসে ইতিমধ্যেই দেশটিতে মারা গেছেন আট শতাধিক মানুষ। আক্রান্ত প্রায় ৩৫ হাজার। ভাইরাসটি দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে বিশ্বের ২৫টিরও বেশি দেশে। তবে এই নিয়ে বাংলাদেশের এখনো আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই বলে আশ্বস্ত করছে রোগ তত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান-আইইডিসিআর। 

তবে অস্বস্তি দূর হচ্ছে না। বিশ্বজুড়ে করোনা ভাইরাসের ছড়িয়ে পড়ার পরিপ্রেক্ষিতে বাড়তি সতর্কতার পাশাপাশি রয়েছে উদ্বেগও। সবশেষ শনিবার চীন ফেরত এক বাংলাদেশী যুবককে জ্বর ও শ্বাসকষ্টসহ কিছু লক্ষণের কারণে ভর্তি করা হয়েছে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। শনিবার দুপুরে, তাজদিদ হোসেন নামের নীলফামারীর ঐ তরুণকে তার বাড়ি থেকে রংপুর মেডিকেলে নিয়ে যাওয়া হয়। তাকে রাখা হয়েছে হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে। এ ব্যাপারে ঢাকা থেকে বিশেষজ্ঞ সহায়তা চাওয়া হয়েছে। 

এদিকে, দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলাতেও আবু রায়হান নামে এক চীন ফেরত বাংলাদেশী শিক্ষার্থীকে রাখা হয়েছে পর্যবেক্ষণে। চীনের ইউনান বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত ঐ শিক্ষার্থী সম্প্রতি ভারত হয়ে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে দেশে আসে। তবে স্থলবন্দরে তার যথাযথ শারীরিক পরীক্ষা না হওয়ায় স্থানীয় পর্যায়ে তাকে নিয়ে উদ্বেগ দেখা দেয়। এখন নিজ বাড়িতেই তাকে জেলা সিভিল সার্জনের উদ্যোগে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।

এই বিভাগের আরো খবর

দেশে করোনা সংক্রমণ দীর্ঘমেয়াদী হওয়ার আশংকা

শাহনাজ ইয়াসমিন: প্রতিরোধ ব্যবস্থা বা...

বিস্তারিত
ফুটপাতে বিক্রি হচ্ছে পিপিই

শেখ হারুন: করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *