আবরার হত্যা: ১০ জন ৫ দিন করে রিমান্ডে

প্রকাশিত: ০৩:৩৯, ০৮ অক্টোবর ২০১৯

আপডেট: ০৫:৩৪, ০৮ অক্টোবর ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় চকবাজার থানায় দায়ের করা মামলার তদন্তের দায়িত্ব ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার (০৮ অক্টোবর) গোয়েন্দা পুলিশের কাছে মামলার তদন্তভার হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানান ঢাকা মহানগর পুলিশের উপ-কমিশনার মো. মাসুদুর রহমান।
এর আগে সকালে চকবাজার থানার ওসি সোহরাব হোসেন জানিয়েছিলেন বিকালে মামলাটি গোয়েন্দা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হতে পারে।
এদিকে আবরার হত্যাকা-ের ঘটনায় গ্রেফতার ১০ জনকে ৫ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন চীফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সাব্বির ইয়াছিন আহসান চৌধুরী। 
বিকেলে গোয়েন্দা পুলিশ গ্রেফতার বুয়েট ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান রাসেল (সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং, দ্বিতয়ি বর্ষ), সহসভাপতি মুহতাসিম ফুয়াদ (সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং, দ্বিতয়ি বর্ষ), সাংগঠনিক সম্পাদক মেহেদী হাসান রবিন (মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং, চতুর্থ বর্ষ), তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক অনিক সরকার (মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং, চতুর্থ বর্ষ), ক্রীড়া সম্পাদক মেফতাহুল ইসলাম জিয়ন নেভাল আর্কিটেকচার অ্যান্ড মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং, চতুর্থ বর্ষ), উপসমাজসেবা সম্পাদক ইফতি মোশাররফ সকাল (বায়ো মেডিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং, তৃতীয় বর্ষ), সদস্য মুনতাসির আল জেমি (মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ, দ্বিতীয় বর্ষ), মো. মুজাহিদুর রহমান মুজাহিদ (ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং, তৃতীয় বর্ষ) এবং মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের তৃতীয় বর্ষের খন্দকার তাবাখখারু ইসলাম তানভির ও একই বিভাগের চতুর্থ বর্ষের ইসতিয়াক আহম্মেদ মুন্নাকে ১০ দিন করে রিমান্ডে নেয়ার আবেদন করলে আদালত ৫ দিন করে মঞ্জুর করেন।

সোমবার রাতে আবরারের বাবা বরকতুল্লাহ সোমবার চকবাজার থানায় ১৯ জনকে আসামি করে মামলাটি করেন। 
ডিবি দক্ষিণের অতিরিক্ত উপকমিশনার খন্দকার রবিউল আরাফাত লেনিন বলেন, মামলার এজাহারভুক্ত আসামির ১০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে। তাদের সবারই অবস্থান মোটামুটি নিশ্চিত হতে পেরেছে পুলিশ।
গত রোববার দিবাগত রাত তিনটার দিকে বুয়েটের শের-ই-বাংলা হলের একতলা থেকে দোতলায় ওঠার সিঁড়ির মাঝ থেকে আবরারের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। জানা যায়, ওই রাতেই হলটির ২০১১ নম্বর কক্ষে আবরারকে পেটান বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতা। ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসক জানিয়েছেন, তাঁর মরদেহে অসংখ্য আঘাতের দাগ পাওয়া গেছে। আবরার বুয়েটের তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক প্রকৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের (১৭ তম ব্যাচ) শিক্ষার্থী ছিলেন। তার বাড়ি কুষ্টিয়ার কুমারখালী।
 

এই বিভাগের আরো খবর

বিএনপির এমপি হারুনের ৫ বছরের কারাদণ্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিএনপির যুগ্ম...

বিস্তারিত
আইনজীবীর সহকারী হত্যা; ১২ জনের ফাঁসি

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা জজ কোর্টের...

বিস্তারিত
আনসার আল ইসলামের ৪ সদস্য গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীর গাবতলী ও...

বিস্তারিত
শপথ নিলেন হাইকোর্টের ৯ বিচারপতি

নিজস্ব প্রতিবেদক: সুপ্রিম কোর্টের...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *