জাবি প্রশাসনিক ভবন অবরোধের হুমকি আন্দোলনকারীদের

প্রকাশিত: ০৫:১৪, ০১ অক্টোবর ২০১৯

আপডেট: ১০:৫৫, ০১ অক্টোবর ২০১৯

সাভার প্রতিনিধি: বেঁধে দেয়া সময়ের মধ্যে উপাচার্য পদত্যাগ না করায় বিশ্ববিদ্যালয়ে সর্বাত্মক ধর্মঘট পালনসহ প্রশাসনিক ভবন অবরোধ কর্মসূচি পালনের ডাক দিয়েছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলনরত শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। তবে উপাচার্য ফারজানা ইসলাম আন্দোলনকারীদের দাবি অযৌক্তিক বলে পদত্যাগ না করার সিদ্ধান্ত জানিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন।

‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ এই ব্যানারে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের একাংশ এক মাস ধরে আন্দোলন করে আসছে। চলমান এ আন্দোলনে উপাচার্য ফারজানা ইসলাম ও তার পরিবারের সদস্যরা দুর্নীতির সাথে জড়িত বলে অভিযোগ করেন আন্দোলনকারীরা। বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা চলাকালীন সময়ের মধ্যে উপাচার্যকে পদত্যাগের জন্য ০১ অক্টোবর পর্যন্ত সময় বেঁধে দেন তারা।

বেঁধে দেয়া সময় শেষে দুপুরে শহীদ মিনারের সামনে লাল কার্ড প্রদর্শন করে নতুন কর্মসূচি ঘোষণা করেন আন্দোলনকারীরা। বিশ্ববিদ্যালয়ে সর্বাত্মক ধর্মঘট পালনসহ প্রশাসনিক ভবন অবরোধ কর্মসূচি পালনের ডাক দেন তারা। তবে সকল বিভাগের ফাইনাল পরীক্ষা ধর্মঘটের আওতামুক্ত থাকবে বলে জানান আন্দোলনকারীরা।

এদিকে, সংবাদ সম্মেলনে আন্দোলনকারীদের দাবি অযৌক্তিক বলে পদত্যাগ না করার সিদ্ধান্ত জানিয়েছেন উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম এই নারী উপাচার্যের বিষয়ে অভিযোগ তিনি উন্নয়ন প্রকল্পে দুর্নীতি করেছেন। উন্নয়ন প্রকল্পের টাকায় ছাত্রলীগকে ঈদ সালামি দিয়েছেন। তার স্বামী ও ছেলেও এই দুর্নীতি সঙ্গে জড়িত বলে জাবি ছাত্রলীগের নেতারা সরাসরি অভিযোগ করেছেন। যদিও এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ফারজানা ইসলাম।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যকে আজকের মধ্যে পদত্যাগের আলটিমেটাম বেধে দিয়েছেন আন্দোলনকারীরা। মঙ্গলবার তিনি পদত্যাগ না করলে আগামীকাল বুধ ও বৃহস্পতিবার সর্বাত্মক ধর্মঘটের ঘোষণা দিয়েছেন শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা।

‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ এর ব্যানারে এক মাস ধরে আন্দোলন করে আসছেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের একাংশ। বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ নিয়ে উপাচার্য ফারজানা ইসলামের ‘মধ্যস্থতায়’ ছাত্রলীগের নেতাদের বড় অঙ্কের আর্থিক সুবিধা দেয়ার অভিযোগ তদন্তসহ তিন দফা দাবিতে তাদের এ আন্দোলন। এছাড়া ‘পূর্ণাঙ্গ মহাপরিকল্পনা’ ছাড়া এসব উন্নয়ন প্রকল্প বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশের ক্ষতি করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ সচেতন শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের। এসব দাবির বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সঙ্গে দুদফা বৈঠকে সমঝোতা হয়নি। এ কারণে উপাচার্যের পদত্যাগ দাবিতে আন্দোলন শুরু করেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

এই বিভাগের আরো খবর

ভিসির অপসারণ দাবিতে জাবিতে ধর্মঘট

সাভার প্রতিনিধি: জাহাঙ্গীরনগর...

বিস্তারিত
অবশেষে ভিসি নাসিরউদ্দিনের পদত্যাগ

নিজস্ব প্রতিবেদক: পদত্যাগ করেছেন...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *