২০২২’ র মধ্যে জলাতঙ্ক রোগমুক্ত হবে বাংলাদেশ

প্রকাশিত: ০২:২৩, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯

আপডেট: ০৫:১১, ১৪ অক্টোবর ২০১৯

আমিনুল ইসলাম মিঠু: ম্যালেরিয়া ও পোলিও’র পর দেশ থেকে জলাতঙ্ক রোগ নির্মূল হতে চলেছে। ২০২২ সালের মধ্যে দেশকে জলাতঙ্ক রোগ মুক্ত করতে কাজ করছে সরকার। এই রোগ নির্মূলে বেওয়ারিশ কুকুর-বিড়ালের মতো প্রাণীকে টিকার আওতায় আনা হয়েছে।

জলাতঙ্ক রোগটি মূলত কুকুরের কামড় বা আচঁড়ের মাধ্যমে ছড়ায়। তবে বিড়াল, শিয়াল, বেজী ও বানরের কামড় বা আচঁড়েও হতে পারে এই রোগ। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হিসাবে, বিশ্বে বছরে ৫৫ হাজার মানুষ জলাতঙ্ক রোগে মারা যায়।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বলছে, ২০১০ সালে এই ঘোষণার আগে দেশে জলাতঙ্ক রোগে বছরে মারা যেত দু’হাজারেরও বেশি মানুষ। তবে এ সংখ্যা এখন বছরে মাত্র ২০০ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ডেপুটি প্রোগ্রাম ম্যানেজার উম্মে রোমান সিদ্দিকী জানান, কুকুরকে জলাতঙ্ক প্রতিষেধক টিকা দেয়াতেই এই সাফল্য এসেছে বলে মনে করছেন তারা।

প্রাণী সম্পদ প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খান খসরু জানান, জলাতঙ্ক রোগ নির্মুলে নেয়া উদ্যোগগুলো কার্যকর করতে সব মন্ত্রণালয় একসঙ্গে কাজ করছে। পাশাপাশি বিদেশ থেকে যাতে আক্রান্ত কোন প্রাণী দেশে আসতে না পারে তা তদারক করা হচ্ছে।    

প্রাণী সংরক্ষণকর্মী রাকিবুল হক এমিল জানালেন, প্রাণী সংরক্ষণে যারা কাজ করেন তারা বলছেন, মানুষকে এই টিকার গুরুত্ব বোঝানো এবং কুকুরভীতি কমাতে সচেতন করতে হবে।

২০১১ সাল থেকে সারাদেশে প্রায় ১৩ লাখ কুকুরকে দেয়া হয় জলাতঙ্ক প্রতিষেধক টিকা।

এই বিভাগের আরো খবর

বিশ্ব মান দিবস আজ

নিজস্ব প্রতিবেদক: আজ সোমবার ১৪...

বিস্তারিত
ছাত্র রাজনীতির সংস্কার চান সাবেক নেতারা

নিজস্ব প্রতিবেদক: নৈতিক অবক্ষয়ের...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *