শব্দ দূষণে অতিষ্ঠ গোপালগঞ্জবাসী

প্রকাশিত: ১১:৫১, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯

আপডেট: ১১:৫১, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি: শব্দ দূষণে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে গোপালগঞ্জ শহরবাসী। শহরে কয়েক হাজার পরিবহনের হর্ণ ও মাইকের উচ্চশব্দের কারণে উচ্চ রক্তচাপ ও শ্রবণ শক্তি লোপ পাওয়াসহ বিভিন্ন শারীরিক সমস্যায় ভুগছেন শহরবাসী।

গোপালগঞ্জ শহরজুড়ে চলছে যানবাহনের হর্নের নৈরাজ্য। বিশেষ করে পুরাতন লঞ্চঘাট ও চৌরঙ্গি এলাকার হাসপাতাল, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আশেপাশে গাড়ির হর্ণ ও মাইক ব্যবহার করা হয় অবাধে। দিনভর শব্দ দূষণের ফলে ওই এলাকায় জনসাধারণের শ্রবণশক্তি হ্রাস পাওয়া, উচ্চরক্ত চাপ, মাথাধরা ও অনিদ্রা সমস্যাসহ নানা রকম সমস্যার ভুগছেন।

গোপালগঞ্জ সিভিল সার্জন ডা. তরুন মন্ডল জানালেন, মানুষের স্বাভাবিক শ্রবণযোগ্য শব্দের মাত্রা ৪৫ ডেসিবেল থেকে ৬০ ডেসিবেল পর্যন্ত। তবে গোপালগঞ্জ শহরে শব্দ দূষণের মাত্রা এর চাইতে অনেক বেশি।

সাধারণ মানুষ জানান, প্রশাসনিক কোন ব্যবস্থা না থাকায় যানবাহনগুলো কোন নিয়মই নামছে না। কর্তৃপক্ষের এই নীরবতায় ক্ষোভ জানিয়েছে তারা।

গোপালগঞ্জ পুলিশ সুপার (ভারপ্রাপ্ত) মো. আসলাম খান জানালেন,  ২০০৬ সালের শব্দ দূষন বিধিমালায় হাসপাতাল, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, অফিস ও আদালত এলাকার ১০০ গজের মধ্যে হর্ণ বাজানো নিষিদ্ধ। তাছাড়া একই আইনে আবাসিক এলাকার ৫০০ মিটার পর্যন্ত নীরব এলাকা হিসাবে ঘোষণা করা হয়েছে। কিন্তু গোপালগঞ্জে এই আইন মানা হয় না।

শব্দ দূষনের বিরুদ্ধে এখনই কোন ব্যবস্থা নেয়া না হলে ভবিষৎতে এই জেলার মানুষদের বড় ধরনের শারীরিক ক্ষতির সম্মুখীন হতে হবে বলে মনে করেন চিকিৎসকরা।

এই বিভাগের আরো খবর

শব্দ দূষণে অতিষ্ঠ গোপালগঞ্জবাসী

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি: শব্দ দূষণে...

বিস্তারিত
বিশ্ব নদী দিবস আজ

অনলাইন ডেস্ক: বিশ্ব নদী দিবস আজ। নদী...

বিস্তারিত
গাছ লাগিয়ে দৃষ্টান্ত গড়লেন পাবনার এক যুবক

পাবনা প্রতিনিধি: পাবনায় নিজ খরচে গাছ...

বিস্তারিত
দেশের সব নদী দখলমুক্ত করা হবে: নৌ সচিব

নিজস্ব প্রতিবেদক: সারাদেশের নদীগুলো...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *