নওগাঁর বিয়াম স্কুলের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

প্রকাশিত: ১০:১৭, ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯

আপডেট: ১০:১৭, ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯

নওগাঁ প্রতিনিধি: নওগাঁর আত্রাইয়ে বিয়াম ল্যাবরেটরি স্কুল ও কলেজের অধ্যক্ষসহ দুজনের বিরুদ্ধে অর্ধকোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ করেছেন শিক্ষক ও কর্মচারীরা। সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে অধ্যক্ষ রেজাউল করিম ও হিসাবরক্ষক রায়হান কবীরকে। ঘটনা তদন্তে চার সদস্যের কমিটি গঠন করেছে  জেলা প্রশাসন। 

নওগাঁর আত্রাই উপজেলায় ২০০৭ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় ‘বিয়াম ল্যাবরেটরি স্কুল ও কলেজ’। ২০১৩ সালে রেজাউল করিম অধ্যক্ষ হিসেবে যোগ দেয়ার পর থেকেই অনিয়মের অভিযোগ ওঠতে শুরু করে। নতুন শিক্ষার্থী ভর্তিতে টাকা লেনদেন, শিক্ষার্থীদের বেতনের টাকা আত্মসাত এবং প্রতিষ্ঠানের কেনাকাটায় অনিয়মের অভিযোগ আনেন শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা। এক পর্যায়ে তাদের বেতনও অনিয়মিত হয়ে পড়ে। 

শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা বলেন, এ ব্যাপারে অধ্যক্ষের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, শিক্ষার্থীরা নিয়মিত বেতন না দেয়ায় বেতন অনিয়মিত হয়ে পড়েছে। তবে, অভিযোগ অস্বীকার করেন শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা। 

নওগাঁ জেলা প্রশাসক হারুন অর রশিদ জানান, শিক্ষকরা প্রতিষ্ঠানের হিসাব দেখতে চাইলে গড়িমসি করতেন অধ্যক্ষ রেজাউল করিম ও হিসাব রক্ষক রায়হান কবীর। পরে শিক্ষকদের অভিযোগে অধ্যক্ষসহ দুইজনকে সাময়িক বরখাস্ত করে চার সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করে জেলা প্রশাসন। 

নওগাঁ বিয়ামের অধ্যক্ষ রেজাউল করিম জানান, অভিযোগ অস্বীকার করলেও ক্যামেরার সামনে কথা বলতে রাজি হননি অভিযুক্ত অধ্যক্ষ। 

নওগাঁ , বিয়ামের  ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ সোহেল রানা জানান, দুই মাস আগে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ নিয়োগ দেয়ার পর প্রতিষ্ঠানটিতে কর্মরতদের বেতন নিয়মিত হয়। তবে, এখনো বকেয়া রয়েছে আগের পাঁচ মাসের বেতন। 

আত্রাই বিয়াম ল্যাবরেটরি স্কুল ও কলেজে মোট শিক্ষার্থী রয়েছে ৮৮৭ জন। এছাড়া শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারী রয়েছেন ৪১ জন।
 

এই বিভাগের আরো খবর

দুর্নীতির অভিযোগ: ৩ জনকে দুদকে জিজ্ঞাসাবাদ

নিজস্ব প্রতিবেদক: অবৈধ সম্পদ অর্জনের...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *