ফরিদপুরে কমছে পানি, বাড়ছে ভাঙন

প্রকাশিত: ১২:১৫, ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯

আপডেট: ১২:১৫, ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ফরিদপুর প্রতিনিধি: পদ্মা নদীর পানি কমতে শুরু করায় ফরিদপুরে বেড়েছে ভাঙন। গত এক সপ্তাহে নদীগর্ভে বিলীন হয়েছে ১৫টি বসত বাড়ি ও কয়েকশএকর ফসলি জমি। হুমকির মুখে রয়েছে সেতু, পাকা সড়ক, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ বেশকিছু স্থাপনা। ভাঙন প্রতিরোধে এরইমধ্যে বালুর বস্তা ফেলা শুরু করেছে পানি উন্নয়ন বোর্ড।

এলাকাবাসী জানায়, পদ্মানদীর তীরবর্তী হওয়ায় নদীতে একটু পানি বাড়লেই তলিয়ে যায় পুরো ইউনিয়ন। আর পানি কমার সাথে সাথে শুরু হয় ভাঙন। এবারও বন্যার পানি নেমে যাওয়ার পর ইউনিয়নের পদ্মা নদীর তীরবর্তী এলাকায় শুরু হয়েছে ভাঙন।

ফরিদপুর নর্থচ্যানেল ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মো. মোস্তাকুজ্জামান জানান, এরইমধ্যে দুটি গ্রামের ১৫টি বসত বাড়ি ও কয়েকশএকর ফসলি জমি নদীগর্ভে বিলীন হয়েছে। হুমকিতে রয়েছে ৫ কোটি টাকা ব্যয়ে সদ্য নির্মিত গোলডাঙ্গী সেতু, নর্থচ্যানেল ইউনিয়ন থেকে শহরে যাওয়ার একমাত্র পাকা সড়ক, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ বেশকিছু স্থাপনা।

ফরিদপুর পানি উন্নয়ন বোর্ড নির্বাহী প্রকৌশলী সুলতান মাহমুদ জানান, ভাঙনকবলিত এলাকায় সোমবার থেকে বালুর বস্তা ফেলা শুরু করেছে পানি উন্নয়ন বোর্ড। সার্বক্ষণিক পর্যবেক্ষণও করা হচ্ছে।

তবে সাময়িক কোন ব্যবস্থা নয়, ভাঙনরোধে স্থায়ী বাঁধ নির্মাণের দাবি নদীপাড়ের মানুষের।

এই বিভাগের আরো খবর

রংপুর শহর রক্ষা বাঁধে ভয়াবহ ভাঙ্গন

রংপুর সংবাদদাতা: রংপুর শহর রক্ষা...

বিস্তারিত
৩ দিন ধরে পানি নেই বক্ষব্যাধি হাসপাতালে

নিজস্ব প্রতিবেদক: তীব্র পানির সংকট...

বিস্তারিত
শিবালয়ে বিলের জলাবদ্ধতা নিরসন

মানিকগঞ্জ সংবাদদাতা: মানিকগঞ্জের...

বিস্তারিত
চট্টগ্রামে নামতে না পেরে ঢাকায় ৫ ফ্লাইট

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঘন কুয়াশার কারণে...

বিস্তারিত
বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম সড়কে তীব্র যানজট

নিজস্ব প্রতিবেদক: দুর্ঘটনা এড়াতে ঘন...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *