ফরিদপুরে ব্যাংক কর্মকর্তার খুনিদের দ্রুত বিচার দাবি

প্রকাশিত: ০৬:২৮, ১৯ আগস্ট ২০১৯

আপডেট: ০৮:৩৭, ১৯ আগস্ট ২০১৯

ফরিদপুর প্রতিনিধি: ফরিদপুরে ব্যাংক কর্মকর্তা রওশন আলী ও মিরাজুল ইসলাম তুহিন মিয়ার হত্যাকারীদের দ্রুত বিচার দাবি করেছে তার পরিবার। আজ (১৯ আগস্ট) জেলার প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন নিহত তুহিনের বোন ড. আসমা শহীদ। অবিলম্বে সব আসামীকে গ্রেফতার করে বিচারের আওতায় আনার দাবি জানান তিনি।

লিখিত বক্তব্যে আসমা শহীদ বলেন, পরিকল্পিতভাবে হানিফ, হাসান গংরা নির্বিচারে গুলি চালিয়ে দুইজনকে হত্যা করে এবং আহত করে আরো ৮ জনকে। আহতরা বর্তমানে ঢাকাসহ ফরিদপুরের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছে। তিনি বলেন, এ হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িতদের মধ্যে অন্যতম আসামী হানিফকে আটক করা হলেও বাকিরা ধরাছোঁয়ার বাইরে। ইতোমধ্যে আসামীরা মামলা তুলে নিতে হুমকি দিয়ে আসছে। অবিলম্বে আসামীদের গ্রেপ্তার করে বিচারের আওতায় আনার দাবি জানানো হয় সংবাদ সম্মেলনে।

পরে প্রেসক্লাবের সামনে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন করে এলাকাবাসী। এ সময় বক্তব্য রাখেন কাইচাইল ইউপি চেয়ারম্যান কবির হোসেন, চরযশোরদী ইউপি চেয়ারম্যান আরিফুর রহমনা পথিক, নিহতের স্বজন মনিরা বেগম। মানববন্ধন শেষে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের কাছে স্বরকলিপি প্রদান করা হয়।

গত ১০ আগষ্ট পূর্ব শক্রতার জের ধরে প্রতিপক্ষের গুলিতে ফরিদপুর অগ্রনী ব্যাংক হাজী শরীয়তুল্লাহ বাজার শাখার অফিসার রওশন আলী ও (রওশন আলীর ভাতিজা) মিরাজুল ইসলাম তুহিন মিয়া নিহত হয়। এ ঘটনায় আহত হয় আরও ১০জন। নিহতের ঘটনায় ১১ আগষ্ট নিহত রওশন এর ভাই ও নিহত তুহিনের পিতা রায়হান উদ্দিন মিয়া ২১জনকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা করে। এ ঘটনায় পুলিশ মূল আসামী হানিফসহ ৫জনকে আটক করেছে।

 

এই বিভাগের আরো খবর

ইটিভির সাবেক চেয়ারম্যান সালামের মামলা বাতিল

নিজস্ব প্রতিবেদক: একুশে টেলিভিশনের...

বিস্তারিত
ওসি মোয়াজ্জেমের মামলার রায় ২৮ নভেম্বর

নিজস্ব প্রতিবেদক: ফেনীর সোনাগাজী...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *