ঢাকা, শনিবার, ২৪ আগস্ট ২০১৯, ৯ ভাদ্র ১৪২৬

2019-08-23

, ২১ জিলহজ্জ ১৪৪০

শিমুলিয়ায় অপক্ষোয় প্রায় ৪শ’ গাড়ি

প্রকাশিত: ১১:৫৫ , ১০ আগস্ট ২০১৯ আপডেট: ০৩:৫২ , ১০ আগস্ট ২০১৯

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি: মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌরুটে ঈদে ঘরে ফেরা মানুষের চাপ বেড়েছে। আজ (শনিবার) সকাল থেকেই এ নৌ-রুটে ১৭টি ফেরি চলাচল করছে বলে জানিয়েছেন বিআইডাব্লিউটিসি'র শিমুলিয়া ঘাটের সহকারী মহাব্যবস্থাপক মো. নাসির।

তিনি জানান, শিমুলিয়া ঘাটে পারের অপেক্ষায় রয়েছে ৪ শতাধিক গাড়ি রয়েছে। তবে এর মধ্যে প্রাইভেটকারের সংখ্যাই বেশি। যাত্রীবাহী বাসের সংখ্যা সীমিত, পারের ক্ষেতে যাত্রীবাহী গাড়ীগুলোকেই প্রাধান্য দেয়া হচ্ছে।

বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে এ গাড়ির চাপ আরো বাড়বে বলে জানান তিনি। তবে সকাল থেকে আবহাওয়া ফেরি চলাচলের জন্য উপযোগী রয়েছে। এরকম পরিস্থিতি থাকলে ফেরি চলাচলে কোনো সমস্যা থাকবে না ও গাড়ির চাপ থাকলেও কমে আসবে। গত দু’দিন নদীতে তীব্র ঢেউ ও বৈরী আবহাওয়া থাকায় ফেরি চলাচল ব্যাহত ছিল।

বিআইডব্লিউটিএ-এর শিমুলিয়া ঘাট পরিদর্শক মো. সোলেমান জানান, সকাল থেকে লঞ্চঘাট ও সিবোট ঘাটে যাত্রীদের বাড়তি চাপ দেখা গেছে। ঈদ উপলক্ষে রাত ১০টা পর্যন্ত লঞ্চ চলাচল করে থাকে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌরুটে।

লঞ্চ চলাচলে কোনো সমস্যার পোহাতে হচ্ছেনা। ধারণক্ষমতার বেশি যাত্রী নিয়ে কোনো লঞ্চ ছেড়ে যাচ্ছে না। এছাড়া সিবোট ঘাটেও যাত্রীদের বাড়তি উপস্থিতি রয়েছে। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে এই যাত্রীদের চাপ অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি।

এদিকে মাওয়া ট্রাফিক পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক হেলাল উদ্দিন জানান, শিমুলিয়া ঘাটের পার্কিং ইয়ার্ডে প্রাইভেটকার ও যাত্রীবাহী বাসগুলোকে পারের অপেক্ষায় আছে। তবে প্রাইভেট কারের সংখ্যাই বেশি। ভোর থেকেই গাড়ির সংখ্যা বাড়ছে। তবে ফেরি দিয়ে পারের ক্ষেতে যাত্রীবাহী গাড়ি আগে পার করা হচ্ছে। এছাড়াও গাড়ি ছাড়া শতশত সাধারণ যাত্রীরা ফেরি দিয়ে নির্বিঘ্নে যাতায়াত করছে।

এই বিভাগের আরো খবর

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is