ঢাকা, বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩ আশ্বিন ১৪২৬

2019-09-18

, ১৮ মহররম ১৪৪১

দূতদের কূটনৈতিক সম্পর্ক জোরালোর তাগিদ প্রধানমন্ত্রীর

প্রকাশিত: ১১:২৮ , ২১ জুলাই ২০১৯ আপডেট: ০৫:৫৬ , ২১ জুলাই ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের স্বার্থে ইউরোপে বাংলাদেশি রাষ্ট্রদূতদের রাজনৈতিক ও কূটনৈতিক বিষয়াবলীতে আরও জোর দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, রাজনৈতিক কূটনৈতিক বিষয়ের বাইরেও আমাদের অর্থনৈতিক বিষয়গুলোতে জোর দিতে হবে। শনিবার (২০ জুলাই) লন্ডনে প্রথমবারের মতো আয়োজিত এনভয় কনফারেন্সে বা দূত সম্মেলনে অংশ নিয়ে তিনি এ আহ্বান জানান।

শনিবার লন্ডনে প্রথমবারের মতো এই দূত সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ইউরোপের বিভিন্ন দেশে দায়িত্ব পালনকারী বাংলাদেশের ১৫ জন রাষ্ট্রদূত, হাইকমিশনার এবং স্থায়ী প্রতিনিধি এই সম্মেলনে যোগ দেন। প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম বৈঠকের পর এই তথ্য নিশ্চিত করেন।

প্রধানমন্ত্রী দূতদের সঙ্গে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলাপ করেন ও পরামর্শ দেন। ইউরোপে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি বৃদ্ধি করা, সেখানে বাণিজ্য প্রসার এবং দেশে বিনিয়োগে ইউরোপীয় ব্যবসায়ীদের আকৃষ্ট করার ব্যাপারে পরামর্শ দেন তিনি।

বিদেশি রাষ্ট্রগুলোর সঙ্গে আরও গভীর ও শক্তিশালী সম্পর্ক স্থাপনের তাগিদ দেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, কিভাবে আমাদের বিনিয়োগ ও বাণিজ্য বাড়ানো যায় এবং বিদেশি বিশেষ করে ইউরোপীয় রাষ্ট্রগুলোতে দক্ষ জনশক্তি রফতানি করা যায় সেই বিষয়ে আমাদের সুযোগ খুঁজে দেথতে হবে। তিনি বলেন, বাংলাদেশে এখন দক্ষ তরুণ প্রজন্ম আছে যারা বিশ্ব বাজারে কাজ করার জন্য যোগ্য।

দক্ষ জনশক্তি তৈরিতে বাংলাদেশে সরকারের বিভিন্ন উদ্যোগ উল্লেক করে বলেন ইতোমধ্যে এমন একটি অ্যাপ তৈরি করা হয়েছে যার মাধ্যমে নয়টি ভাষায় দক্ষতা অর্জন করা সম্ভব হবে। দূতদের তিনি সংশ্লিষ্ট দেশের বাজার যাচাই করে অর্থনৈতিক উন্নতির ব্যাপারে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি।

সম্মেলনে যোগ দেন, আবু জাফর (অস্ট্রিয়া), মো. শাহাদৎ হোসেন (বেলজিয়াম), মুহম্মদ আবদুল মুহিত (ডেনমার্ক), কাজী ইমতিয়াজ হোসেন (ফ্রান্স), ইমতিয়াজ আহমেদ (জার্মানী), জসিম উদ্দিন (গ্রীস), আবদুস সোবহান সিকদার (ইতালি), শেখ মোহাম্মদ বেলাল (নেদারল্যান্ড) , মুহম্মদ মাহফুজুর রহমান (পোল্যান্ড), রুহুল আলম সিদ্দিক (পর্তুগাল), ড. এস এম সাইফুল হক (রাশিয়া), হাসান মোহাম্মদ খন্দকার (স্পেন), নাজমূল ইসলাম (সুইডেন), শামিম আহসান (সুইজারল্যান্ড) এবং সাইদা মুনা তাসনীম (যুক্তরাজ্য)। তারা প্রত্যকেই বিভিন্ন কার্যাবলীর উপস্থাপনা করেন। একইসঙ্গে ভবিষ্যত পরিকল্পনার কথাও তুলে ধরেন তারা।

আগামী ৫ আগস্ট দেশে ফেরার কথা রয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার।

 

এই বিভাগের আরো খবর

তিস্তা নদীর পানি বেড়ে সহস্রাধিক মানুষ পানিবন্দী 

লালমনিরহাট প্রতিনিধি: টানা বর্ষণ আর উজান থেকে নেমে আসা ঢলে লালমনিরহাটে তিস্তা নদীর পানি বিপদসীমার ১০ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।...

প্রশিক্ষণ ছাড়া জনশক্তি রপ্তানি করলে ব্যবস্থা: প্রবাসি কল্যাণমন্ত্রী  

নিজস্ব প্রতিনিধি: প্রশিক্ষণ ছাড়া বিদেশে জনশক্তি রপ্তানিকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন প্রবাসি কল্যাণ ও বৈদেশিক...

‘২৪ ঘণ্টায় পেঁয়াজের দাম কমবে’

নিজস্ব প্রতিবেদক: আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে দেশের বাজারে পেঁয়াজের দাম কমে আসবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন ট্যারিফ কমিশনের সদস্য শাহ মো. আবু রায়হান...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is