এনআইডিতে ভুল: সংশোধনে নানা দুর্ভোগ

প্রকাশিত: ০৯:৪৫, ২১ জুলাই ২০১৯

আপডেট: ১২:১৪, ২১ জুলাই ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক: জাতীয় পরিচয়পত্রে ভুল সংশোধনের জন্য রাজধানীর নির্বাচন কমিশনে যারা যান, মাঠ পর্যায়ের প্রশাসনের কাছে গিয়ে তাদের হয় প্রথম ধাপের তিক্ত অভিজ্ঞতা। বছরের পর বছর ঘুরতে হয়। সেখানে  ভোগান্তি আরো বেশি, বলছেন ভুক্তভোগীরা। কর্তৃপক্ষ দুষছেন সেবা প্রার্থীদের এবং বলছেন মাঠ পর্যায়ে সীমাবদ্ধতার কথা। 

ঢাকায় নির্বাচন ভবনে অপেক্ষার ক্লান্তিতে এভাবে ঘুমিয়ে পড়ে জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধন করতে আসা সেবা গ্রহিতাদের অনেকে। ঢাকায় আসার আগে উপজেলা ও থানা নির্বাচন অফিসে বছরের পর বছর ঘুরেছেন তারা, সেবা না পেয়ে বিভিন্ন কর্মকর্তার তদবিরের সুবাদে এসেছেন এখানে। 

মুক্তিযোদ্ধা মিজানুর রহমান টাঙ্গাইলের বাসাইল নির্বাচন অফিসে ছেলের নাম সংশোধনের জন্য আবেদন করেন ২০১৬ সালে। সেবা তো পানইনি, চাইতে গিয়ে খারাপ ব্যবহার পেয়েছেন কর্মকর্তার কাছ থেকে, এমন অভিযোগ করলেন।

উপজেলা পর্যায়ের নির্বাচন কার্যালয়ে জাতীয় পরিচয়পত্রের ভুল সংশোধন আবেদন করে কয়েক বছর ঘুরতে হয়েছে। ফল না পেয়েই ঢাকায় আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে এসেছেন। তাদের ঝুরিতে ভোগান্তির বিচিত্র চিত্র।   

গত বছর সংশোধনের আবেদন করার স্লিপটা হারিয়ে ফেলে আবার নিজ এলাকার নির্বাচন অফিসে আবেদন করতে হয়েছে মিরপুরের নজরুল ইসলামকে। জটিলতা বেড়েছে আরও।

সিলেটের একটি নির্বাচন অফিসে ২০১৭ সালে নাম সংশোধনের আবেদন করেছিলেন মিলন। দেড় বছরের বেশি সময় পেড়িয়েছে, পাননি সমাধান। তার অভিযোগ সংশোধনের জন্য নির্বাচন কমিশনের চাহিদা পত্র জটিল। কর্তৃপক্ষেরও অভিযোগ আছে নাগরিকদের প্রতি।

তবে মাঠ পর্যায়ে নির্বাচন কর্মকর্তার সীমাবদ্ধতার কথা জানালেন সম্প্রতি বিদায় নেয়া নির্বাচন কমিশন সচিব। সবাই না পেলেও তদবিরে অনেকে সেবা পাচ্ছেন বলে তিনিই জানান।

স্থানীয় পর্যায়ে দ্রুততম সময়ে সেবা নিশ্চিত করতে জাতীয় পরিচয় পত্রের সার্ভারের সক্ষমতা বাড়ানোর পরামর্শ আছে সাবেক এই সচিবের।
 

এই বিভাগের আরো খবর

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *